শনিবার, ২৮ মে ২০২২, ০২:২৮ অপরাহ্ন

রাতের আধারে মন্দিরে ঢুকে দূর্গা প্রতিমা ভাঙচুর; আতঙ্কিত হিন্দুধর্মালম্বীরা

বাংলার প্রতিদিন ডেস্ক ::
  • আপডেট সময় শনিবার, ১৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৬
  • ১৪৩ বার পড়া হয়েছে

 

জয় মহন্ত অলক, জেলা প্রতিনিধি,ঠাকুরগাঁও ॥ ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার

শুখানপুকুরী ইউনিয়নে রাতের আধারে দূর্গা মন্দিরে ঢুকে প্রতিমা ভাঙচুর

করেছে দূর্বৃত্তরা।

শুক্রবার(১৬ সেপ্টেম্বর) ভোররাতে ঐ ইউনিয়নের লাউথুতি গ্রামের মাষ্টার পাড়ায়

সার্বজনীন দূর্গা মন্ডপে এ ন্যাক্কারজনক ঘটনাটি ঘটায় দূর্বৃত্তরা।

সরেজমিনে মাষ্টার পাড়া দূর্গা মন্ডপে গিয়ে দেখা যায়, আসন্ন দূর্গা পুজা

উপলক্ষে মন্দিরে নির্মিতব্য প্রতিমাগুলোর দেহাবশেষ ভাঙ্গা অবস্থায় মন্দিরের চারপাশে

ছড়িয়ে ছিটিয়ে পড়ে আছে। এ সময় উপস্থিত হিন্দুধর্মালম্বীদের চোখে-মুখে

আতঙ্কের ছায়া দেখা গেছে।

উপস্থিত গৌরহরি নামে এক স্থানীয় জানান, দূর্গা পুজা শুরু হতে আর মাত্র ২০-

২৫ দিন বাকী।এ সময় রাতের আধারে মন্দিরে ঢুকে আমাদের দেব-দেবীদের প্রতিমা

ভাঙচুর করা হচ্ছে।আমরা আতঙ্কিত অবস্থায় আছি।সামনে পুজায় বাড়ী থেকে

পুজা দেখতে বের হব কি না, সেটাই চিন্তা করছি। একই বক্তব্য উপস্থিত আরো

অনেকের।

এ ব্যাপারে মন্দির কমিটির সভাপতি নিপেন্দ্র নাথ বর্মন বলেন, আমরা প্রথম বারের

মতো এখানে দূর্গা পুজা করতে চলেছি। রাতে আমরা ১২টা পর্যন্ত প্রতিমা

পাহাড়া দেই এবং যাওয়ার সময় পলিথিন দিয়ে প্রতিমাগুলি ঢেকে রেখে যাই।আজ

সকালে এসে দেখি পলিথিন গুলো পড়ে আছে। কাছে গিয়ে দেখি প্রতিমাগুলো

কেউ ভেঙ্গে দিয়েছে।আমি সাথে সাথে এলাকার চেয়ারম্যানকে বিষয়টি অবহিত

করি।পরবর্তীতে সদর থানার পুলিশের এসআই কফিলউদ্দিন ঘটনাস্থল পরিদর্শন
protima-2
করেছেন।

স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান আনিছুর রহমান জানান, বিষয়টি জানার পর সাথে

সাথে আমি ঘটনাস্থলে গিয়ে দেখি মন্দিরের প্রতিমাগুলো ভাঙ্গা রয়েছে। আমার

ধারণা জামায়াত-শিবিরের লোকজন এটা ঘটিয়েছে। বিষয়টি পুলিশ প্রশাসনকে

গুরুত্ব সহকারে তদন্ত করে প্রকৃত অপরাধীদের দ্রুত আইনের আওতায় নেয়ার দাবি

জানাই।

এ বিষয়ে আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংগঠন বাংলাদেশ মাইনোরিটি ওয়াচ

ঠাকুরগাঁও জেলা শাখার সভাপতি প্রান্ত দাস অনুপ জানান, বিষয়টি দুপুরে

জানার পর আমি এবং জাগো হিন্দু পরিষদের নেতৃবৃন্দ ঘটনাস্থল পরিদর্শন

করেছি।এটা একটি ন্যাক্কারজনক ঘটনা।আমরা এর তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ

জানাই।পাশাপাশি এ ব্যাপারে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীকে বিষয়টি গুরুত্বের সাথে

তদন্ত পূর্বক দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণ করার দাবি জানাচ্ছি।

ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেছেন ঠাকুরগাঁও সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি)

মো: মশিউর রহমান।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © banglarprotidin.com
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebazarbanglaro4451