রবিবার, ০২ অক্টোবর ২০২২, ০৪:১৭ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম ::
শরীয়তপুরের ডামুড্যা ২ দিন ধরে নিখোঁজ, বাড়ির পাশে পুকুরে বস্তাবন্দি মরদেহ খুলনায় ইটবাহী ট্রলির ধাক্কায় কলেজ অধ্যক্ষ নিহত কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের আবাসিক হল বন্ধ এবং পরীক্ষা স্থগিত করার সিদ্ধান্ত যুক্তরাষ্ট্রে নিউ ইয়র্কে আমেরিকান মুসলিম দিবস উপলক্ষে পদযাত্রা হিন্দুদের মন্দিরে বাড়ি-ঘরে-মণ্ডপে হামলা করে, যে পরিচয়ে হোক, এ দুর্বৃত্তদের ক্ষমা নেই : কাদের আলোকিত কুড়িগ্রামের মিলনমেলা-২০২২ অনুষ্ঠিত রাষ্ট্রীয় সম্মান গার্ড সর্বস্তরের শ্রদ্ধায় রণেশ মৈত্রের শেষকৃত্য সম্পন্ন বাঙালি হিন্দুদের প্রধান ধর্মীয় শারদীয় দুর্গোৎসব সত্য-সুন্দরের আলোয় ভাস্বর হয়ে উঠুক : রাষ্ট্রপতি প্ল্যাটফর্ম ইনস্টাগ্রামেও জনপ্রিয় হয়ে উঠছেন সানজিদা-কৃষ্ণা-রিতুপর্ণারা রাজধানীর যেসব মার্কেট ও দোকানপাট বৃহস্পতিবার বন্ধ

মুন্সীগঞ্জের বিলে শাপলা কুড়াতে গিয়ে বজ্রপাতে ৩ শিশুর মৃত্যু

অনলাইন ডেক্স
  • আপডেট সময় শনিবার, ১০ সেপ্টেম্বর, ২০২২
  • ১৪ বার পড়া হয়েছে

মুন্সীগঞ্জের টঙ্গীবাড়ীতে বজ্রপাতে তিন শিশু নিহত হয়েছে। আজ শনিবার দুপুর ১টার দিকে উপজেলার ধামারণ গ্রামের বিলের মধ্যে শাপলা কুড়াতে গিয়ে তারা আকস্মিক বজ্রপাতে নিহত হয়। নিহত তিন শিশুর নাম রামিম, রবিউল ও সানজিদা। তাদের বয়স ১০ থেকে ১২ বছরের মধ্যে হবে বলে জানা গেছে।

 

স্থানীয়রা জানান, শনিবার রামিম, রবিউল, সানজিদাসহ অপর এক শিশু বাড়ির পাশের বিলে শাপলা কুড়াতে যায়। দুপুর দেড়টার দিকে আকস্মিক বজ্রপাত হলে চার শিশু আহত হয়। পরে স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে তিনজনকে মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাদের মৃত ঘোষণা করেন।

মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক এস এম ফেরদৌস জানান, দুপুর ২টা ১০ মিনিটের দিকে তিন শিশুকে হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। তাদের সবাই মৃত ছিল।

শিমুলিয়া ইউনিয়নের ইউপি চেয়ারম্যান আনিসুর রহমান জানান, আমার এলাকায় বজ্রপাতে তিন শিশুর মৃত্যু হয়েছে। তাদের লাশ সদর হাসপাতালে রয়েছে। এদের মধ্যে সানজিদা ও রামিম নানিবাড়ি বেড়াতে এসেছিল। তারা সম্পর্কে খালাতো ভাই ও বোন। অপর শিশু নিহত রবিউল সানজিদা ও রামিমের মামাতো ভাই। রবিউল ধামারণ গ্রামের মমিন আলীর ছেলে।

স্থানীয় নজরুল ইসলাম ব্যাপারী বলেন, সানজিদা টঙ্গীবাড়ী উপজেলার সোনারং গ্রামের সাইফুল মোল্লার মেয়ে এবং রামিম একই গ্রামের কামালের ছেলে। সানজিদা ও রামিম স্থানীয় মাদরাসায় পড়ে। মাদরাসার ছুটিতে তারা গত বৃহস্পতিবার ধামারণ গ্রামের মামা মমিন আলী ব্যাপারীর বাড়িতে বেড়াতে এসেছিল।

টঙ্গীবাড়ী থানার ওসি মো. রাজিব খান বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, বজ্রপাতে নিহত তিন শিশু আহত হলে তাদের মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাদের মৃত ঘোষণা করেছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © banglarprotidin.com
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebazarbanglaro4451