শনিবার, ২৮ মে ২০২২, ০১:১৯ অপরাহ্ন

  ঝিনাইদহে  এবার বসির উদ্দিন মেম্বারের কারিশমা-একাধিকবার বয়স জালিয়াতি সনদে কর অফিসে সরকারি চাকুরি নেওয়ার পায়তারা !

বাংলার প্রতিদিন ডেস্ক ::
  • আপডেট সময় রবিবার, ১৪ আগস্ট, ২০১৬
  • ১১৯ বার পড়া হয়েছে

ঝিনাইদহ প্রতিনিধিঃ

ঝিনাইদহ সদর উপজেলার কুমড়াবাড়িয়া ইউনিয়নের সাবেক মেম্বার মোঃ বসির উদ্দিন কর অফিসে সরকারি চাকুরি পাওয়ার লোভে একাধিকবার বয়স জালিয়াতি করার অভিযোগ উঠেছে।

 

সুত্র জানিয়েছে, ঝিনাইদহ সদর উপজেলা রামনগর গ্রামের মৃত গোলাম রব্বানী মোল্লার ছেলে সাবেক মেম্বার মোঃ বসির উদ্দিন ১৯৮৮ সালে ডেফলবাড়িয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে এসএসসি পাস করেন। ওই সময় জন্ম তারিখ ছিল ০১-১১-১৯৭০।

এরপর তিনি ডেফলবাড়িয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে ২০০৬ সালে অষ্টম শ্রেনির পাসের সনদপত্র নিয়ে চুয়াডাঙ্গা কর অফিসে দৈনিক ৫০টাকা মুজুরি হিসাবে চাকুরী নেন।

 

অষ্টম শ্রেনি পাসে তার জন্ম তারিখ দেখানো হয়েছে ০১-০৬-১৯৭৭ এবং বিদ্যালয় পরিত্যাগ পত্রে ১৯৯০ সাল অষ্টম শ্রেনি দেখানো হয়েছে।

 

এলাকাবাসীর প্রশ্ন একই বিদ্যালয় থেকে ১৯৮৮ সালে এসএসসি পাস করছেন এবং একই বিদ্যালয় থেকে ১৯৯০ সালে অষ্টম শ্রেনি পাস করছেন। এরজন্য দায়ী কে ? বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক না সাবেক মেম্বার বসির উদ্দিন। তিনি এসএসসি পাসের সনদপত্র দিয়ে ইউনিয়ন পরিষদের মেম্বার পদে নির্বাচিত হয়েছিলেন।

সুত্র আরো জানায়, খুলনা কমিশনার অফিস থেকে ২০০৪ ও ২০০৬ সালে মজুরি ভিত্তিক লোক নিয়োগ দেওয়ার জন্য বিভিন্ন অফিসে অনুমতি প্রদান করেন। সে আলোকে চুয়াডাঙ্গা কর অফিসে নিয়োগ নেন। ২০১০ সালে প্রত্যক কর্মচারীকে অব্যাহতি দেওয়া হয়।

 

এরই আলোকে কয়েকজন মাস্টাররোল কর্মচারী হাইকোটে রিট করলে কোর্ট তাদেরকে ¯’ায়ীভাবে চাকুরী দেওয়ার জন্য কর কমিশনারকে নির্দেশ দেন। এই নির্দেশের পরিপ্রেক্ষিতে ৬জনকে ইতোমধ্যে নিয়োগ প্রদান করেছেন।

 

এই সুযোগ বুঝে  বসির উদ্দিনের শ্যালক ঝিনাইদহের কর অফিসের কর্মচারী আতিকুল ইসলাম তার দুলা ভাইকে বয়স কমিয়ে চাকুরি পাওয়ার জন্য হাইকোটে রীট করার পরামর্শ দেন।

 

এরই জের ধরে বসির উদ্দিন জন্ম নিবন্ধন করে ভোটার আইডি কার্ডে বয়স কমানোর জন্য এফিডেভিট মাধ্যমে নির্বাচন অফিসে তথ্য গোপন করে বয়স কমানো জন্য কাগজপত্র  জমা দিয়েছেন।

 

ইতিপূর্বে তারই এক আত্মীয় একই কায়দায় কর অফিসে চাকুরি নিতে গিয়ে জালিয়াতি ধরা পড়ে এবং তদন্তের মাধ্যমে ঝিনাইদহ আদালতে মামলা হয়। যা এখানো বিচারাধীন অব¯’ায় আছে।

 

বিষয়টি সঠিকভাবে তদন্তের জন্য প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষন করেছেন এলাকাবাসী। এ বিষয়ে বসির উদ্দিনের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বিষয়টি এড়িয়ে যান।
 

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © banglarprotidin.com
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebazarbanglaro4451