রবিবার, ২৯ জানুয়ারী ২০২৩, ১১:২৯ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম ::

নতুন ইসি নিয়ে বিএনপি প্রতিক্রিয়া জানাবে মঙ্গলবার রাতে

বাংলার প্রতিদিন ডেস্ক ::
  • আপডেট সময় মঙ্গলবার, ৭ ফেব্রুয়ারী, ২০১৭
  • ১৬৮ বার পড়া হয়েছে

অনলাইন ডেস্কঃ 

নবগঠিত নির্বাচন কমিশনের ব্যাপারে তাৎক্ষণিক কোনো প্রতিক্রিয়া জানায়নি বিএনপি। দলটির পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, মঙ্গলবার রাতে ২০ দলীয় জোটের শরিকদের সঙ্গে আলোচনা করে এ ব্যাপারে আনুষ্ঠানিক প্রতিক্রিয়া জানানো হবে।

আজ সোমবার রাতে সাবেক সচিব খান মোহাম্মদ নূরুল হুদাকে প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) করে পাঁচ সদস্যের নতুন নির্বাচন কমিশন গঠন করা হয়েছে।

অন্য কমিশনার হলেন সাবেক সচিব মো. রফিকুল ইসলাম, সাবেক অতিরিক্ত সচিব মাহবুব তালুকদার, রাজশাহীর সাবেক জেলা ও দায়রা জজ কবিতা খানম ও ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব.) শাহাদৎ হোসেন চৌধুরী।

আজ রাতে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার সভাপতিত্বে দলের সর্বোচ্চ নীতি-নির্ধারণী ফোরাম স্থায়ী কমিটির বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে।

রাতে বিএনপি চেয়ারপারসনের গুলশান কার্যালয়ে এই বৈঠক শুরু হয়ে চলে দেড়ঘণ্টাব্যাপী। বৈঠকে, দেশের চলমান রাজনৈতিক পরিস্থিতি, নির্বাচন কমিশন পুনর্গঠন ও সার্চ কমিটির কার্যক্রমসহ বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনা হয়।

আলোচনায় প্রধান্য পায় নতুন নির্বাচন কমিশনের বিষয়টিও। নতুন নিয়োগপ্রাপ্ত কমিশনারদের বিষয়েও বিস্তারিত আলোচনা করেন কমিটির সদস্যরা।

বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন, দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, অবসরপ্রাপ্ত লেফটেন্যান্ট জেনারেল মাহবুবুর রহমানসহ দলের স্থায়ী কমিটির সদস্যরা।

বৈঠক শেষে বিএনপির পক্ষ থেকে কোনো ব্রিফ করা হয়নি।

রাত সাড়ে ১১টায় বিএনপি চেয়ারপারসনের গণমাধ্যম শাখার কর্মকর্তা শায়রুল কবির খান এনটিভি অনলাইনকে বলেন, ‘বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর জানিয়েছেন, আগামীকাল মঙ্গলবার রাতে ২০ দলীয় জোটের জরুরি বৈঠক ডাকা হয়েছে। এরপর নতুন নির্বঅচন কমিশনের ব্যাপারে বিএনপি চেয়ারপারসনের গুলশান কার্যালয়ে এ ব্যাপারে প্রতিক্রিয়া জানাবেন দলের মহাসচিব।’

তবে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ গঠিত নতুন নির্বাচন কমিশনারদের প্রতি নিজেদের আস্থার কথা জানিয়েছে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ।

এ দিকে রাতে নবগঠিত ইসির নাম প্রকাশের সময় সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে বিএনপির প্রস্তাবনার ব্যাপারে  মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সচিব বলেন, ‘অতিরিক্ত সচিব মাহবুব তালুকদার এবং স্থানীয় সরকার বিশেষজ্ঞ ড. তোফায়েল আহমদের নাম বিএনপির কাছ থেকে এসেছিল। এর মধ্যে মাহবুব তালুকদারকে নির্বাচন কমিশনার হিসেবে নিয়োগ দিয়েছেন রাষ্ট্রপতি।’

‘অপরদিকে আওয়ামী লীগ প্রস্তাব করেছিল রাজশাহীর সাবেক জেলা ও দায়রা জজ কবিতা খানম ও পরিকল্পনা কমিশনের সাবেক সদস্য আবদুল মান্নানের নাম। এর মধ্যে রাষ্ট্রপতি কবিতা খানমকে নিয়োগ দিয়েছেন।’

তবে তাঁদের নামে ‘কালার’ দেওয়া ঠিক হবে না বলেও মন্তব্য করেন শফিউল আলম। তিনি বলেন, ‘বিএনপি দিলেও নামগুলো কিন্তু নির্দলীয় হিসেবে এসেছে।’

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © banglarprotidin.com
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebazarbanglaro4451