বৃহস্পতিবার, ১৪ নভেম্বর ২০১৯, ০৬:২২ পূর্বাহ্ন

জম্মু-কাশ্মীর এখনো অবরুদ্ধ , চীনের সঙ্গে উত্তেজনা এবার

অনলাইন ডেস্কঃ
  • আপডেট টাইম শুক্রবার, ১ নভেম্বর, ২০১৯
  • ৬ বার পড়া হয়েছে

ভারতের কেন্দ্র শাসিত অঞ্চল হিসেবে আনুষ্ঠানিকভাবে যাত্রা শুরুর পর এখনও অবরুদ্ধ জম্মু-কাশ্মীর। কাশ্মীর ঘিরে পাকিস্তানের পর উত্তেজনা দেখা দিয়েছে এবার ভারত ও চীনের মধ্যে। জম্মু কাশ্মীরে নিজেদের ভূখণ্ড রয়েছে বলে করেছে বেইজিং। জবাবে ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে নাক না গলাতে সতর্ক করেছে নয়াদিল্লি।

এদিকে, কাশ্মীরে বাঙালি শ্রমিক নিহতের জন্য ক্ষমতাসীন বিজেপিকে দায়ী করেছেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

স্বায়ত্বশাসিত জম্মু কাশ্মীর ভেঙে কেন্দ্র শাসিত জম্মু কাশ্মীর ও লাদাখের আনুষ্ঠানিক যাত্রার দিনও কার্যত থমথমে পরিস্থিতি বিরাজ করছে অধিকাংশ এলাকায়। বন্ধ দোকান পাট, খা খা করছে রাস্তাঘাট। সহিংসতার আশঙ্কায় ঘর থেকে বের হচ্ছেন না কেউই। যে কোন অপ্রীতিকর পরিস্থিতি এড়াতে মোতায়েন রয়েছে কয়েক লাখ নিরাপত্তাকর্মী।

জম্মু কাশ্মীরের সংবিধান বিলুপ্তের পাশাপাশি নামিয়ে ফেলা হয়েছে অঞ্চলটির নিজস্ব পতাকা। রেডিও কাশ্মীর শ্রীনগরের নাম বদলে রাখা হয়েছে অল ইন্ডিয়া রেডিও শ্রীনগর।

তবে সাধারণ কাশ্মীরিরা বলছেন, সব বদলালেও তাদের মনে যে কাশ্মীর রয়ে গেছে তা বদলানো সম্ভব নয়। মূলত চাপা ক্ষোভে ফুঁসছেন তারা।

তারা বলছেন, সংবিধানের ৩৫ এর এ এবং ৩৭০ অনুচ্ছেদ বাদ করা হয়েছে, কিন্তু আমাদের কাছে এর কোন অর্থ নেই। তারা আমাদের মনকে বদলাতে পারবে না। কেননা তারা আমাদের যে ক্ষতি করেছে আমরা তা কখনোই ভুলবো না। অনেক নিষ্পাপ শিশুর পাশাপাশি অসংখ্য কাশ্মীরি নিজের জীবন উৎসর্গ করেছেন।

সময়ই বলে দেবে এই অবস্থা আর থাকবে না। তারা কতদিন আমাদের অবরুদ্ধ রাখতে পারবেন? বিশ্ব দেখছে এখানে কী হচ্ছে!

লাদাখের প্রথম লেফটেন্যান্ট গভর্নর হিসেবে শপথ নিয়ে অঞ্চলটির সার্বিক উন্নয়নের ঘোষণা দিয়েছেন রাধাকৃষ্ণ মাথুর।

লাদাখের প্রথম লেফটেন্যান্ট গভর্নর রাধাকৃষ্ণ মাথুর বলেন, প্রত্যেকটি ক্ষেত্রেই আমরা উন্নতি করতে পারব বলে বিশ্বাস করি। শিগগিরই আমরা উন্নয়নের নকশা ও কর্মপদ্ধতি প্রণয়নে সক্ষম হব।

এদিকে, কাশ্মীরের কুলগামে সন্ত্রাসী হামলায় পাঁচ বাঙালি নিহতের ঘটনায় কেন্দ্রকে এক হাত নিয়েছেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বিজেপির ৩৭০ অনুচ্ছেদ বাতিলের পরিপ্রেক্ষিতেই এই হামলা হয়েছে বলে সরকারের ওপর দায় চাপান তিনি।

পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, পাঁচ বাঙালিকে নিষ্ঠুরভাবে হত্যা করা হয়েছে। বর্তমানে সেখানে কোন রাজনৈতিক দল নেই, সব কিছু কেন্দ্র সরকার নিয়ন্ত্রণ করছে। এটি খুবই লজ্জাজনক। এ ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত হওয়া উচিৎ।

কেন্দ্র শাসিত জম্মু কাশ্মীর ও লাদাখ অঞ্চলের আনুষ্ঠানিক ঘোষণার তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছে চীন। জম্মু কাশ্মীর ও লাদাখে বেশ কিছু অংশ চীনের ভূখণ্ড বলেও দাবি করা হয়।

চীনা পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র জেং শুয়াং বলেন, তথাকথিত কেন্দ্রশাসিত জম্মু কাশ্মীর ও লাদাখ ঘোষণার তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি আমরা। ভারত আমাদের স্বার্বভৌমত্ব ও আমাদের স্বার্থে আঘাত হেনেছে। তাদের এই ধরনের কর্মকাণ্ড বেআইনি। চীনের স্বার্বভৌমত্বকে সম্মান জানানোর পাশাপাশি শান্তি স্থিতিশীলতা রক্ষায় দুই দেশের সীমান্ত সংকট নিরসনেরও আহ্বান জানাচ্ছি।

তবে জম্মু কাশ্মীরকে ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয় দাবি করে এ বিষয়ে নাক না গলাতে চীনকে সতর্ক করে দিয়েছে নয়া দিল্লি।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © 2019 banglarprotidin
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebazarbanglaro4451