মঙ্গলবার, ০৬ ডিসেম্বর ২০২২, ১২:৫৯ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম ::
নাগেশ্বরীতে সংবাদ টিভির ৫ম তম প্রতিষ্ঠাতা বার্ষিকী উদযাপন ছাত্রলীগের সম্মেলনে আয়োজকদের ওপর ক্ষুব্ধ হয়ে মঞ্চ ছাড়লেন আ. লীগের চার নেতা যশোরে খাবার হোটেলে ঢুকে পড়ল কাভার্ড ভ্যান, পাঁচজনের মৃত্যু সড়ক পরিবহন মালিক ধর্মঘট শুরু, পাবনায় জনদুর্ভোগ চরমে অভিনেত্রী রোশনি ভট্টাচার্যের একই পাত্রকে দ্বিতীয়বার বিয়ে করতে যাচ্ছেন হবিগঞ্জে স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণ : দুই আসামির ফাঁসির আদেশ পেনাল্টি কিকগুলো আমি হলেও মিস করতাম না : তসলিমা ডিআরইউ নির্বাচনের পরে জাতীয় প্রেস ক্লাবে একত্রে বগুড়ায় বস্তিবাসীর তথ্যে দুর্ঘটনার কবল থেকে রক্ষা লালমনি এক্সপ্রেস কভিড-১৯ সংক্রমণ প্রতিরোধে টিকার চতুর্থ ডোজ দেওয়ার সুপারিশ

রাজনগর হাসপাতাল ঝুঁকিপূর্ণ ঘোষণা, রোগী ভর্তি বন্ধ

অনলাইন ডেক্স
  • আপডেট সময় শুক্রবার, ২৩ সেপ্টেম্বর, ২০২২
  • ২৩ বার পড়া হয়েছে

মৌলভীবাজারের রাজনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের প্রধান ভবন ফাটল দেখা দেওয়ার কারণে ভবনটি ঝুঁকিপূর্ণ হওয়ায় হাসপাতালের আন্তর্বিভাগে তিন দিন ধরে রোগী ভর্তি বন্ধ ঘোষণা করেছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। গত রবিবার (১৮ সেপ্টেম্বর) রাত ১টা ২০ মিনিটে আকস্মিক বিকট শব্দে কেঁপে ওঠে হাসপাতালটি। এ সময় হাসপাতালে নিয়োজিত ডাক্তার, নার্স, কর্মকর্তা-কর্মচারী ও সাধারণ রোগীরা পড়েন আতঙ্কের মধ্যে। রোগী ভর্তি ও চিকিৎসাসেবা কার্যক্রম সীমিত পরিসরে চালু থাকলেও গত বুধবার বিকেল থেকে তা সম্পূর্ণ বন্ধ রয়েছে।

শুধু হাসপাতালের জরুরি ও বহির্বিভাগ চালু রয়েছে, কিন্তু তাতেও মিলছে না পর্যাপ্ত চিকিৎসাসেবা। ফলে চিকিৎসা নিতে আসা রোগীদের সেবা পেতে পোহাতে হচ্ছে নানা ভোগান্তি।

 

হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, ১৯৮৫ সালে রাজনগর হাসপাতালটি নির্মিত করা হয়। উপজেলার ৮টি ইউনিয়নের প্রায় আড়াই লাখ মানুষের একমাত্র ভরসা ৩১ শয্যাবিশিষ্ট রাজনগর সরকারী হাসপাতালটি। গত রবিবার রাতে এই হাসপাতালের প্রশাসনিক ভবন, বহির্বিভাগসহ বিভিন্ন জায়গায় ২০-২৫ টি ফাটল দেখা দেয় এবং ৬-৭টি জায়গায় ছাদের ওপর থেকে পলেস্তরা খসে পড়েছে। খবর পেয়ে স্বাস্থ্য প্রকৌশল বিভাগের মৌলভীবাজারের নির্বাহী প্রকৌশলী ও সিলেটের সুপারিন্টেন্ডেন্ট প্রকৌশলী ভবনটি পরিদর্শন করে ভবনটি ঝুঁকিপূর্ণ ঘোষণা করায় হাসপাতালে রোগী ভর্তি বন্ধ করা হয়েছে। ফলে চিকিৎসা না পেয়ে ফিরে যেতে বাধ্য হচ্ছেন রোগীরা।

 

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. আফজালুর রহমান শুক্রবার বিকেলে মুঠোফোনে এই প্রতিবেদককে বলেন, বিষয়টি জেলা সিভিল সার্জন ও স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের ডিজিকে জানানো হয়েছে। পরবর্তীতে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক মহোদয় আমাদের বলেন, হাসপাতালটি ঝুঁকিপূর্ণ হওয়ায় রোগী ভর্তি করা যাবে না। ভবনটি ঝুঁকিপূর্ণ হওয়ায় স্বাস্থ্য প্রকৌশল বিভাগের কর্মকর্তাদের পরামর্শে রোগী ভর্তি কার্যক্রম বন্ধ রয়েছে।

স্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের মৌলভীবাজার কার্যালয়ের নির্বাহী প্রকৌশলী শফিকুল ইসলাম পাঠান বলেন, ঘটনাস্থল গিয়ে প্রত্যক্ষর্শীদের বক্তব্য ও বিভিন্ন ফাটল দেখে ভবনটি ঝুঁকিপূর্ণ মনে হয়েছে। আমরা ঝুঁকিপূর্ণ লিখে ঊর্ব্ধতন কর্তৃপক্ষের কাছে  প্রতিবেদন পাঠিয়েছি।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © banglarprotidin.com
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebazarbanglaro4451