রবিবার, ২৭ নভেম্বর ২০২২, ০১:০২ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম ::
নাটোরের লালপুরে ‘ইমো হ্যাকিং চক্রের’ ৭ সদস্য গ্রেপ্তার জাতীয় গার্মেন্টস শ্রমিক ফেডারেশন, শ্রম মন্ত্রণালয় ঘেরাওয়ের ঘোষণা! দুবাই যেতে পারছেন না পোশাক ডিজাইন উরফি! ব্রাজিলের বড় তারকা নেইমারের বিশ্বকাপ শেষ? নড়াইলের ইউপি চেয়ারম্যানের ইয়াবা সেবনের ভিডিও ভাইরাল, সমালোচনার ঝড় মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত দুই জঙ্গি ছিনতাইয়ের ঘটনায় একজন গ্রেপ্তার আমি বুলেটপ্রুফ, লোহার পোশাক পরে আছি : ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো কুড়িগ্রামের নাগেশ্বরীতে মুঈনুল উম্মাহ ফাউন্ডেশনে থেকে মহা গ্রন্থ পাগড়ী ও সন্মাননা স্মারক প্রদান এদেশে নির্বাচন নিয়ে আর কোনো খেলা হবে না, বিএনপির সমাবেশে বলেন ‘ ফখরুল ‘দুর্বল’ ২৪ ঘণ্টায় দেশে ২২ জনের করোনা শনাক্ত

দর্শনার্থীদের নিধেষাজ্ঞা বশ করতে আনা হচ্ছে আরো ৪টি পোষা হাতি

বাংলার প্রতিদিন ডেস্ক ::
  • আপডেট সময় শনিবার, ১৩ আগস্ট, ২০১৬
  • ১৪৮ বার পড়া হয়েছে

জাহিদ হাসান (সরিষাবাড়ী জামালপুর:) প্রতিনিধি,,,, দেশের পাঁচ জেলায় ঘুরে বেড়ানো বানের জলে ভেসে আসা ভারতীয় বুনোহাতিটির নাম দেয়া হয়েছে ‘বঙ্গবাহাদুর’। ‘বঙ্গবাহাদুর’কে বশে আনতে গাজিপুর বঙ্গবন্ধু সাফারি পার্ক থেকে চারটি পোষাহাতি আনা হচ্ছে। বন বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন, বুনোহাতিটি যেখানে রয়েছে সেখানে ট্রাক বা ক্রেন যাওয়ার রাস্তা নেই। তাই হাতিটিকে স্থানান্তর করতে হলে প্রায় এক কিলোমিটার হাটিয়ে ডাঙায় নিয়ে ট্রাক বা ক্রেনে ওঠানো হবে। এজন্য পোষাহাতি ও মাহুতের সাহায্যে বুনোহাতিটিকে ৫-৭দিন প্রশিক্ষন দিয়ে বশে আনা হবে। পরে স্থানান্তর প্রক্রিয়া শুরু করা হবে।
হাতি উদ্ধারকারী দলের সদস্য বন্যপ্রাণি ও প্রকৃতি সংরক্ষন অঞ্চল ঢাকার সাবেক উপ-প্রধান বন সংরক্ষক ড. তপন কুমার দে জানান, ভারতীয় হাতিটি দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে ঘুরে জামালপুরের সরিষাবাড়ীতে এসে ধরা দিয়েছে। হাতিটি বন্য হলেও এখন পর্যন্ত সে কারো বড় ধরনের কোন ক্ষতি করেনি। এ জন্য এ হাতির নাম রাখা হয়েছে ‘বঙ্গবাহাদুর’।
স্থানীয় ফরেস্টার খলিলুর রহমান জানান, হাতিটি বর্তমানে সুস্থ রয়েছে। হাতিটিকে কলাগাছ, কলা, আখ, গুড়, বাঁশপাতাসহ সবুজ খাবার দেওয়া হচ্ছে। এছাড়া ৭টি স্যালাইন ও উচ্চ ক্ষমতাসম্পন্ন ভিটামিনসহ টানা চিকিৎসাসেবা চলছে। তবে ‘বঙ্গবাহাদুর’কে স্থানান্তর করে কোথায় রাখা হবে তা প্রধান বন সংরক্ষকের সাথে বৈঠক করে বন বিভাগের বিশেষজ্ঞরা সিদ্ধান্ত নেবেন বলে তিনি জানান।
এদিকে শনিবার সকালে হাতিটি সামনের দুই পায়ের রশি ছিড়ে ফেলে। এ সময় হাতিটি কিছুটা ক্ষিপ্ত হয়ে পার্শ্ববর্তী বাড়ির কয়েকটি চারাগাছ ও বাড়ি ক্ষতিগ্রস্থ করে। পরে উদ্ধারকর্মী ও স্থানীয়রা মিলে কয়ড়া গ্রামের শাহ আলমের বাড়ির পার্শ্বে একটি আমগাছের সঙ্গে হাতির পেছনের দুই পায়ে শিকল পরানো অবস্থায় পুনরায় বেঁধে ফেলে। তবে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ও উদ্ধারকর্মীরা দর্শনার্থীদের ভিড়ে বেশ হিমশিম খাচ্ছেন বলে জানা গেছে। আর তাই হাতি দর্শনে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে জেলা প্রশাসন। এ বিষয় নিয়ে শুক্রবার রাতে স্থানীয় ডাকবাংলোতে জেলা প্রশাসক মো. শাহাবুদ্দিন খান সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময় করেন। এ সময় জেলা প্রশাসক জানান, হাতি উদ্ধারের সার্বিক প্রস্তুতির কাজ নির্বিঘেœ সম্পন্ন করার জন্য রেল স্টেশন থেকে কামরাবাদের কয়ড়া-হাটবাড়ি-স্বাধীনাবাড়ি এলাকায় রাস্তায় বহিরাগত ও যান চলাচলে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা হয়েছে। এ সময় তিনি সবার সহযোগিতা কামনা করেন।
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সাইয়েদ এজেড মোরশেদ আলী জানান, শনিবার সকাল হতে বহিরাগত ও যান চলাচলে নিষেধাজ্ঞা আরোপসহ কয়ড়াগামী রাস্তার শুরুতে সতর্কিকরণ বিজ্ঞপ্তি টানিয়ে দেয়া হয়েছে। এছাড়া স্থানীয় পত্রিকা ও ক্যাবল নেটওয়ার্কে জেলা প্রশাসকের আহ্বানে সতর্কিকরন বিজ্ঞাপন এবং মাইকিং করা হচ্ছে জনসাধারণকে নিরাপদ দূরে থাকার জন্য। পরিস্থিতি সামলাতে এলাকায় মোতায়েন করা হয়েছে র‌্যাব, পুলিশ, ফায়ার সার্ভিস, আনসার ও স্বেচ্ছাসেবী টিম।
কয়ড়া গ্রামের স্বেচ্ছাসেবক মোজাম্মেল হোসেন জানান, সকল নিয়ম ভেঙ্গে সারাদিন হাজার হাজার দর্শনার্থী ‘বঙ্গবাহাদুর’কে দেখতে ভিড় করছে। কামরাবাদ ইউনিয়নের কাজীর বাড়িতে দর্শনার্থী ও দোকানদারদের মেলা বসেছে। প্রশাসনের নির্দেশনা বাস্তবায়নে নিয়োজিত পুলিশ সদস্যদের সাথে জনসাধারণের বাকবিতন্ডতা হচ্ছে। এ নিয়ে অপ্রীতিকর ঘটনার আশঙ্কা করছেন তারা।
এদিকে শনিবার বিকেলে বন্যপ্রাণি ও প্রকৃতি সংরক্ষন অঞ্চল ঢাকার বন সংরক্ষক অসিত রঞ্জন পাল উদ্ধারকারী দলের সাথে যোগ দিয়েছেন। এ সময় তিনি সাংবাদিকদের জানান, হাতিটি সামনের দুই পায়ের রশি ছিড়ে ফেলায় নতুন করে লোহার শিকল পরাতে হবে। এ জন্য আগামিকাল (আজ রোববার) আবারো ‘ট্যাঙ্কুলাইজার গান’ দিয়ে ‘মেটাল ডার্ট’ (চেতনানাশক ইনজেকশন) দিয়ে অচেতনের পর পায়ে লোহার শিকল পরানো হবে। পরে আরো ৪টি পোষাহাতি ও মাহুতের মাধ্যমে প্রশিক্ষন দিয়ে বুনোহাতিকে বশ এনে স্থানান্তর করা হবে। এছাড়া হাতিটি ক্ষিপ্ত হয়ে যেসব বাড়ির ক্ষতি করেছে নিয়মানুযায়ী আবেদন করলে তাদের ক্ষতিপূরন দেওয়া হবে বলেও তিনি জানান।
জানা গেছে, টানা ৪৩ দিন দেশের বিভিন্ন স্থানে বন্যার পানিতে অবস্থানের পর টানা ১২ দিনের অভিযান শেষে বৃৃহস্পতিবার দুপুর ১.৫৮টায় জামালপুরের সরিষাবাড়ী উপজেলার কামরাবাদ ইউনিয়নের কয়রা এলাকায় কক্সবাজারের ডুলাহাযরা সাফারি পার্কের ভেটেরিনারি সার্জন ডা. মোস্তাফিজুর রহমান হাতিকে লক্ষ্য করে অত্যাধুনিক ‘ট্যাঙ্কুলাইজার গান’ দিয়ে ‘মেটাল ডার্ট’ (চেতনানাশক ইনজেকশন) দিয়ে হাতিটি উদ্ধার করেন। প্রায় ৫ মে. টন ওজনের পুরুষ বুনোহাতিটি গত ২৮ জুন উজানের ঢলে বাংলাদেশ সীমান্তের কুড়িগ্রামে ঢুকে। এরপর কুড়িগ্রামের রৌমারীতে ৯ জুলাই পর্যন্ত থেকে ব্রহ্মপুত্র ও যমুনা নদী পাড়ি দিয়ে এসে গাইবান্ধায় ১০-১৩ জুলাই, জামালপুরে ১৪-১৬ জুলাই, বগুড়ায় ১৭-১৮ জুলাই, সিরাজগঞ্জে ১

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © banglarprotidin.com
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebazarbanglaro4451