শনিবার, ০৬ জুলাই ২০২৪, ০৪:০৮ পূর্বাহ্ন

মহেশপুরে আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচন কে সামনে রেখে গণ সংযোগ চালিয়ে যাচ্ছেন সাবেক এম.পি পুত্র মেহেদী হাসান রনি

বাংলার প্রতিদিন ডেস্ক ::
  • আপডেট সময় রবিবার, ১৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৭
  • ১৭৪ বার পড়া হয়েছে

মোস্তাফিজুর রহমান উজ্জল, ঝিনাইদহ প্রতিনিধি:
মহেশপুরের কৃতি সন্তান মেহেদী হাসান রনি ঝিনাইদহের মহেশপুর
উপজেলার ভালাইপুর গ্রামের এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্ম গ্রহন
করেন। পিতা ঝিনাইদহ জেলা বিএনপির সাবেক সাধারন সম্পাদক ও
সংসদ সদস্য প্রয়াত আলহাজ্ব শহীদুল ইসলাম মাষ্টার, মাতা: মোছা:
জাহানারা নাজনীন “সু” গৃহিনী। রনি অস্ট্রেলিয়া থেকে শিক্ষা জীবন
শেষ করে সক্রিয়ভাবে রাজনীতিতে অংশ গ্রহন করেন। পিতার স্বপ্ন পূরণ ও
শহীদ জিয়ার আদর্শ বাস্তবায়নের লক্ষ নিয়ে ধানের শীষের পক্ষে মানুষের
আস্থা অর্জনে মাঠে নেমেছেন তিনি। মহেশপুর-কোটচাঁদপুরের মৃত
প্রায় বিএনপিকে উজ্জীবিত করতে এবং আগামী নির্বাচনে
বিএনপিকে ক্ষমতায় আনতে দলীয় নেতাকমীদেরকে ঐক্যবদ্ধ করার শপথ নিয়ে
অব্যাহতভাবে মহেশপুর উপজেলা বিএনপির যুগ্ম সম্পাদক মেহেদী
হাসান রনি, মহেশপুর-কোটচাঁদপুর নির্বাচনী এলাকার গণ মানুষের
সাথে জনসংয়োগ চালিয়ে যাচ্ছেন এবং সকলের সুখ দুঃখের খবরা-খবর
নিচ্ছেন। তার এ পথ চলায় সাথী হয়েছেন তার মা “জাহানারা নাজনীন”
। রনির পিতা সাবেক এমপি শহীদুল ইসলাম মস্টার ছিলেন, ছাত্র জীবন
থেকেই এক প্রতিবাদী মানুষ। তিনি তার জীবদ্দশায় নির্যাতিত
মানুষের পাশে দাড়িয়ে তাদেরকে সার্বিকভাবে নিজ অর্থ দিয়ে
সহযোগীতা করতেন। তার সামনে বিপদগ্রস্থ মানুষ একবার যেয়ে
পড়লে,সে ব্যাক্তির বিপদ উদ্ধার না হওয়া পর্যন্ত তিনি বিশ্রাম নিতেন
না। ফলে এলাকার মানুষ শহীদুল ইসলাম মাস্টারকে বিএনপির মনোনয়নে বার
বার ভোট দিয়ে এম.পি নির্বাচিত করত। তিনি এম.পি নির্বাচিত
হয়ে মহেশপুর-কোটচাঁদপুরবাসীর কল্যাণে মরণ অব্দি কাজ করে গেছেন।
তাই আজও তিনি দলীয় নেতা কর্মী ছাড়াও সকল দলের মানুষের নিকট
উন্নয়নের রুপকার হিসেবে খ্যাত। রনি পেয়েছে তার পিতা শহীদুল
ইসলাম মাস্টারের স্বভাব। ছোটবেলা থেকেই রনি গরীব দুখী মানুষের পাশে

দাড়িয়ে, তাদের সুখ দুঃখের ভাগীদার হয়েছে বলে এলাকায় জনশ্রু
প্রতিয়মান। ফলে আজ তিনি অর্জন করেছেন সাধারন মানুষের আস্থা ও
ভালবাসা। এছাড়া ছাত্র জীবন থেকেই রনি শহীদ জিয়ার আদর্শে
অনুপ্রাণিত, বিএনপির অকুতোভয় সেবক। ২০১৬ সালের ২১শে এপ্রিল
পিতা শহীদুল ইসলাম মাস্টার মারা যাওয়ার পর পরই সে তার পিতার
রাজনৈতিক গুরু, সহ-যোদ্ধাদের অনুপ্রেরনায় মহেশপুর-কোটচাঁদপুরের
মানুষের কল্যাণে, তাদের বিপদে-আপদে সহযোগীতার হাত বাড়ানোর
অভিপ্রায়ে বিএনপির রাজনীতিতে আসেন রনি। তিনি দলীয় ত্যাগী
নেতাকর্মী সহ তৃণমূল পর্যায়ের নেতাকর্মীদের খোজ খবর নিচ্ছেন
এবং সকল বিভেদ ভূলে পদ-পদবীর আশায় একে অপরের মাঝে হানাহানি
সৃষ্টি না করার আহবানে দেশ নেতৃ বেগম খালেদা জিয়া ও তারুন্যের
অহংকার বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানের নেতৃত্বে
সকলকে বিএনপির পতাকাতলে সামিল হয়ে আগামী জাতীয় সংসদ
নির্বাচনে ভোট যুদ্ধের মাধ্যমে বিএনপিকে ক্ষমতায় বসিয়ে দেশের
মানুষের ব্যাক্তি স্বাধীনতা ফিরিয়ে দেওয়ার জন্য রনি মহেশপুর-
কোটচাঁদপুরের বিভিন্ন গ্রাম ও ইউনিয়নে প্রতিনিয়ত গন
সংযোগ চালিয়ে যাচ্ছেন। এছাড়া বর্তমান সরকারের মিথ্যা মামলায়
যেসকল বিএনপির নেতাকর্মী কারাবাস করেছে এবং করছে তাদের সহ
পরিবারের খোঁজ-খবর নিচ্ছেন এবং সহযোগীতা করে চলেছেন। ফলে
অধিকাংশ নেতাকর্মীরা বর্তমানে আশায় বুক বেঁধেছে যে, তাদের
প্রয়াত নেতা শহীদুল ইসলামের অসমাপ্ত কাজ ও নেতাকর্মীদের এক
কাতারে সামিল করে, আগামী দিনের আন্দোলন সংগ্রামে সফলভাবে
দেশনেতৃ বেগম খালেদা জিয়ার স্বপ্নকে পূরণ করতে পারবে এ তরুণ
টগবগে নেতা রনি। এব্যাপারে স্বরজমীনে মহেশপুর-কোটচাঁদপুরের
বিভিন্ন ইউনিয়ন ঘুরে তৃণমূল পর্যায়ের নেতাকর্মীদের সাথে
আলাপকালে তারা সকলেই জানান, রনি সৎ, সদালাপী, প্রতিবাদী যুবক,
গরীবের বন্ধু। ফলে আগামী নির্বাচনে কেন্দ্রীয় নেতারা যদি তাকে
মনোনয়ন দেন তাহলে আমরা মনেপ্রাণে, আনন্দচিত্তে,দেশ নেতৃীর
হাতকে শক্তিশালী করতে, রনিকেই ভোটের মাধ্যমে বিজয়ী করতে সক্ষম হব
আশা রাখি। মেহেদী হাসান রনি জানান,নেতাকর্মীরা আমাকে পেয়ে

খুশি। তারা চাইলে আমি আগামী নির্বাচনে সকলকে সাথে নিয়েই
সফল হবো ইনশাআল্লাহ।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © banglarprotidin.com
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebazarbanglaro4451