সোমবার, ৩০ জানুয়ারী ২০২৩, ০৯:০৭ পূর্বাহ্ন

গ্রামীণ অর্থনীতির উন্নয়নই আওয়ামী লীগ সরকারের লক্ষ্য

বাংলার প্রতিদিন ডেস্ক ::
  • আপডেট সময় রবিবার, ১৯ মার্চ, ২০১৭
  • ২৬৬ বার পড়া হয়েছে

বাংলার প্রতিদিন ডটকম ঃ

গ্রামীণ অর্থনীতির উন্নয়নই আওয়ামী লীগ সরকারের লক্ষ্য। গ্রামের মানুষের জীবনমান উন্নয়নের ওপরই দেশের সত্যিকারের উন্নতি নির্ভর করছে। বললেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।রোববার ঢাকার কৃষিবিদ ইনস্টিটিউটে আওয়ামী তাঁতী লীগের সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন।শেখ হাসিনা বলেন, গ্রামীন উন্নয়নকে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে ২০৪১ সালের মধ্যে উন্নত রাষ্ট্র গঠনের লক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছে সরকার। আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় থাকলে দেশের সবক্ষেত্রে উন্নয়ন হয়। আর বিএনপি ক্ষমতায় আসলে হয় লটপাট।তিনি বলেন, ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধুকে স্বপরিবারে হত্যার পর দেশের মানুষ দীর্ঘ সময় কষ্ট করেছে। ২১ বছর বাঙালির ভাগ্য অন্ধকারে ডুবে ছিল। যারা দেশের স্বাধীনতা চায়নি তারাই রাষ্ট্র ক্ষমতায় আসে। এরপরই শুরু হয় তাদের লুটপাট। দেশের মানুষের ভাগ্যোন্নয়ন না করে নিজেদের পকেট ভরতে ব্যস্ত হয়ে ওঠে।প্রধানমন্ত্রী বলেন, ২১ বছর পর ১৯৯৬ সালে আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসে। এরপরই  দেশের মানুষের ভাগ্যোন্নয়নে কাজ শুরু হয়। অর্থনীতির চাকা সচল হয়। দেশ সামনের দিকে এগিয়ে যায়। মাঝে আবার দীর্ঘ সময়ের জন্য দেশে দুর্যোগ নেমে আসে।তিনি বলেন, ২০০১ সালে বিএনপি-জামায়াত ক্ষমতায় এসে ফের পকেট ভরতে শুরু করে। রাষ্ট্রের উন্নয়ন না করে নিজেদের ও পরিবার, আত্মীয়-স্বজনের উন্নয়নে ব্যস্ত হয়ে যায়। দেশের অর্থনীতিকে পেছনের দিকে নিয়ে যায়। দেশ বিরোধী আলবদর, রাজাকার, আল শামসের হাতে পতাকা তুলে দেয়। ৩০ লাখ শহীদের সঙ্গে বেঈমানি করে। সাধারণ জনগণের ওপর চলে ৭১ ’র মতো নির্যাতন।অল্প সময় দেশের রাষ্ট্র ক্ষমতায় থেকে বঙ্গবন্ধু দেশের জন্য যা দরকার সবকিছুই করে দিয়েছেন উল্লেখ করে শেখ হাসিনা বলেন, এতো অল্প সময়ের মধ্যে তিনি দেশের জন্য যা করেছেন বিশ্বের আর কোনো নেতা সেটা পারেননি। তিনি শুধু দেশের জন্য স্বাধীনতা এনে দেননি। মৌলিক চাহিদার জন্য সংবিধান দিয়েছেন। সেখানে রাষ্ট্র পরিচালনার সবকিছু স্পষ্টভাবে বলে দিয়েছেন। বাংলাদেশে আজ বিশ্বের বুকে উন্নত সমৃদ্ধ দেশের কাতারে দাঁড়াচ্ছে। কিন্তু আমাদের দুর্ভাগ্য জাতির পিতা বেঁচে নেই। ৭৫-এ দেশের শত্রুরা তাকে স্বপরিবারে হত্যা করেছে।সরকার প্রধান আরো বলেন, দেশের ঐতিহ্যবাহী শিল্প হচ্ছে তাঁত। সরকার এ শিল্পের উন্নয়নে সব ধরনের সহযোগিতা করবে। বিএনপি-জামায়াত জোট ক্ষমতায় এসে তাঁত শিল্পের উন্নয়নে কোনো পদক্ষেপ নেয়নি। তাদের সময় অনেক তাঁতী বেকার হয়ে পড়েছে। মানবেতর জীবনযাপন করেছে। একমাত্র আওয়ামী লীগ দেশের মানুষের উন্নয়নের জন্য কাজ করে।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © banglarprotidin.com
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebazarbanglaro4451