বুধবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০১:৫২ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম ::

পাইকগাছায় দীর্ঘদিন পর সাংগঠনিক ভাবে ঘুরে দাড়িয়েছে বিএনপি

বাংলার প্রতিদিন ডেস্ক ::
  • আপডেট সময় মঙ্গলবার, ২০ সেপ্টেম্বর, ২০১৬
  • ১৮২ বার পড়া হয়েছে

 

 
ইমদাদুল হক, পাইকগাছা (খুলনা) ॥

পাইকগাছায় দীর্ঘদিন পর সাংগঠনিক ভাবে ঘুরে দাড়িয়েছে

জাতীয়তাবাদী দল বিএনপি। অতিতের যে কোন সময়ের চেয়ে বর্তমানে দলীয়

কর্মসূচিতে উপস্থিতি বৃদ্ধি পেয়েছে নেতাকর্মীদের। পালন করা হচ্ছে প্রায়

প্রতিটি দলীয় কর্মসূচি। আর দলীয় কর্মসূচি পালন করায় দীর্ঘদিন পর তৃণমূল

নেতাকর্মীদের মধ্যে ফিরে এসেছে প্রাণ চাঞ্চল্য। ডাঃ আব্দুল মজিদ ও এ্যাডঃ

জিএম আব্দুস সাত্তারের নেতৃত্বে এবং দায়িত্বশীল ভূমিকায় দলের মধ্যে এমন

চাঙ্গাভাব ফিরে এসেছে বলে মনে করছেন দলীয় নেতাকর্মীরা। দুনেতার তত্তাবধায়নে

ইতোমধ্যে প্রায় ৯০ ভাগ ওয়ার্ড কমিটির এবং একটি ইউনিয়নের সম্মেলন

সম্পন্ন হয়েছে। আগামী ১ মাসের মধ্যে পৌরসভা ও সকল ইউনিয়নের সম্মেলন

সম্পন্ন হবে বলে থানা ও পৌর বিএনপি’র আহবায়ক জানিয়েছেন।

সূত্র মতে, ৯০ দশকের পূর্বে উপজেলায় বিএনপি’র শক্তিশালী অবস্থান না

থাকলেও ৯০ পরবর্তী সময় থেকে শক্তিশালী রাজনৈতিক দল গুলোর মধ্যে স্থান করে নেয়

দলটি। ২০০৯ সালের ৩০ নভেম্বর খুলনা মহানগরের অভিজাত একটি হোটেলে দলের

সম্মেলনকে কেন্দ্র করে দুটি গ্র“পে বিভক্ত হয়ে পড়ে দলীয় নেতা কর্মীরা। কমিটির

সভাপতি হিসাবে আলহাজ্ব এ্যাডঃ জিএ সবুর এবং পরবর্তীতে সাধারণ সম্পাদক

হিসাবে আলহাজ্ব এ্যাডঃ আবু সাঈদের নাম ঘোষণা করা হয়। একদিকে দলীয়

কোন্দল এবং পরবর্তীতে বর্তমান সরকারের প্রথম মেয়াদের শেষ ভাগে অর্থাৎ ১৩-১৪

সালের দিকে সরকার বিরোধী আন্দোলনে গ্রেফতার এবং অধিকাংশ নেতাকর্মীরা

মামলায় জড়িয়ে পড়ায় প্রায় সম্পন্ন নিস্ক্রীয় হয়ে পড়ে দলের সাংগঠনিক

কার্যক্রম। প্রায় ৮ বছর পর পূর্বের কমিটি ভেঙ্গে দিয়ে জেলা বিএনপি’র স্বাস্থ্য

বিষয়ক সম্পাদক ডাঃ আব্দুল মজিদকে থানা বিএনপি আহবায়ক ও আইনজীবী

সমিতির সভাপতি এ্যাডঃ জিএম আব্দুস সাত্তারকে পৌর বিএনপি’র আহবায়ক

করে পৃথক দুটি কমিটি গঠন করা হয়। কমিটি গঠনের পর এই দুই আহবায়কের

দায়িত্বশীল নেতৃত্বে গত ৮ মাসের ব্যবধানে পূর্বের অবস্থান থেকে ঘুরে

দাড়িয়েছেন বলে মনে করছেন রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা। দলীয় নেতাকর্মীদের মধ্যেও

একই ধরণের মন্তব্য করছেন অনেকেই। থানা ছাত্রদলের সভাপতি, পৌর বিএনপি’র

প্রথম যুগ্ম-আহবায়ক ও প্যানেল মেয়র এসএম ইমদাদুল হক জানান, বর্তমান

আহবায়ক কমিটি গঠনের আগে সাংগঠনিক কর্ম তৎপরতা না থাকায় অধিকাংশ

নেতাকর্মীরা বিএনপি’র নাম ভুলতে বসেছিল। বর্তমান কমিটি গঠনের পর গত ৮

মাসে প্রায় প্রতিটি দলীয় কর্মসূচি পালন করায় দলের হারানো ঐতিহ্য ফিরে

এসেছে বলে তিনি মন্তব্য করেন। তিনি আরো বলেন, বর্তমান কমিটির

নেতৃত্বে খুব দ্রুত সময়ের মধ্যে বিএনপি আগের চেয়ে ভাল অবস্থানে ফিরে

আসবে বলে মন্তব্য করেন। এ ব্যাপারে থানা বিএনপি’র আহবায়ক ডাঃ আব্দুল

মজিদ বলেন, যখন দলের দায়িত্ব পেয়ে ছিলাম তখন নেতাকর্মীরা প্রায় সকলেই

নিস্ক্রীয় ছিল। দায়িত্ব পাওয়ার পর তৃণমূল নেতাকর্মীদেরকে আবারো চাঙ্গা করার

উদ্যোগ নেই এবং অল্প সময়ের মধ্যে নেতাকর্মীদের মধ্যে চাঙ্গা মনোভাব ফিরে

আসে। যার ফলে সকল স্তরের নেতাকর্মীদের সরব উপস্থিতে প্রতিটি কর্মসূচি

সফল ভাবে সম্পন্ন করতে পেরেছি। সাংগঠনিক কার্যক্রম পরিচালনার ক্ষেত্রে দলের

প্রতিটি নেতাকর্মীর মতামতকে গুরুত্ব দেয়া হয়েছে। যার ফলশ্র“তিতে ইতোমধ্যে

১টি পৌরসভা ও ১০টি ইউনিয়নের ৯০ ভাগ ওয়ার্ড কমিটি এবং ১টি

ইউনিয়নের সম্মেলন সফল ভাবে সম্পন্ন করা সম্ভব হয়েছে। আগামী ১ মাসের

মধ্যে সকল ইউনিয়ন ও পৌরসভা সম্মেলন সম্পন্ন করা সম্ভব হবে এবং সম্মেলন

শেষে দলটি আরো শক্তিশালী হবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © banglarprotidin.com
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebazarbanglaro4451