সোমবার, ২৮ নভেম্বর ২০২২, ১০:১০ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম ::
জনপ্রিয় অভিনেতা মিঠুন চক্রবর্তী সড়ক দুর্ঘটনার কবলে বিশ্বকাপে জমে উঠল দুর্দান্ত জাপানকে হারিয়ে জার্মানির ‘উপকার’ করল কোস্টারিকা দেশের ব্যাংক খাতের বর্তমান পরিস্থিতি জানানোর নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর নাটোরের লালপুরে ‘ইমো হ্যাকিং চক্রের’ ৭ সদস্য গ্রেপ্তার জাতীয় গার্মেন্টস শ্রমিক ফেডারেশন, শ্রম মন্ত্রণালয় ঘেরাওয়ের ঘোষণা! দুবাই যেতে পারছেন না পোশাক ডিজাইন উরফি! ব্রাজিলের বড় তারকা নেইমারের বিশ্বকাপ শেষ? নড়াইলের ইউপি চেয়ারম্যানের ইয়াবা সেবনের ভিডিও ভাইরাল, সমালোচনার ঝড় মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত দুই জঙ্গি ছিনতাইয়ের ঘটনায় একজন গ্রেপ্তার আমি বুলেটপ্রুফ, লোহার পোশাক পরে আছি : ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো

হবিগঞ্জের বানিয়াচংয়ে বিএনপি নেতার বিরুদ্ধে মসজিদে বরাদ্দের টাকা আত্নসাতের অভিযোগ

বাংলার প্রতিদিন ডেস্ক ::
  • আপডেট সময় শনিবার, ২৭ আগস্ট, ২০১৬
  • ২৪৮ বার পড়া হয়েছে

সাইফুল ইসলাম তালুকদার,জেলা প্রতিনিধিঃ
বানিয়াচঙ্গের দৌলতপুর ইউনিয়ন বিএনপির সহ-সভাপতি হাজী আমির হোসেন ভূয়া মাস্টার রোল দেখিয়ে টিআর বরাদ্দের সাড়ে ২১ হাজার টাকা তুলে আত্মসাত করেছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। অর্থ আত্মসাতের ঘটনায় এলাকাবাসী ক্ষুব্ধ হয়ে উঠেছেন।
এদিকে বরাদ্দকৃত অর্থ ফেরত চেয়ে আমির হোসেনকে চিঠি দিয়েছে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ।
সূত্র জানায়, ২০১৫-১৬ অর্থবছরে টিআর (টেস্ট রিলিফ) সাধারণ ২য় পর্যায়ের আওতায় দৌলতপুর কেন্দ্রীয় মসজিদের রাস্তা পুননির্মাণে সাড়ে ২১ হাজার টাকা বরাদ্দ হয়। বরাদ্দের বিপরীতে কাজের সত্যতা যাচাইয়ে সরজমিন গেলে দৌলতপুর কেন্দ্রীয় মসজিদ নামে কোনো মসজিদের সন্ধান পায়নি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ। অথচ ইউনিয়ন বিএনপির সহসভাপতি আমির হোসেন পাঁচ সদস্যের কমিটি জমা দিয়ে বরাদ্দের অর্থ তুলেন। সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ গত ২১ আগস্ট অর্থবরাদ্দ ফেরত চেয়ে প্রকল্প বাস্তবায়ন কমিটির সভাপতি আমির হোসেনের কাছে চিঠি পাঠিয়েছে।
এদিকে ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানের নামে ভূয়া প্রকল্প দেখিয়ে অর্থ আত্মসাত করায় দৌলতপুর খালিদ বিন ওয়ালিদ জামে মসজিদ কমিটির নেতৃবৃন্দসহ স্থানীয় লোকজন ক্ষুব্ধ হয়ে উঠেছেন। এ বিষয়ে দৌলতপুর ইউনিয়ন বিএনপির সহসভাপতি হাজী আমির হোসেনের সঙ্গে মুঠোফোনে যোগাযোগ করলে তিনি আত্মসাতের অভিযোগ অস্বীকার করেন।
তিনি বলেন,  মসজিদের নাম খালিদ বিন ওয়ালিদ। প্রকল্পের বরাদ্দে ভুলবশত কেন্দ্রীয় মসজিদ লেখা হয়েছে। আগের (সাবেক) চেয়ারম্যান যুবলীগ নেতা মনজু কুমার দাশ মসজিদের রাস্তার মেরামতে বরাদ্দ দেন। কিন্তু রাস্তায় পানি উঠায় কাজ করা সম্ভব হয়নি। পানি নেমে গেলে কাজ করা হবে। এ ব্যাপারে জানতে দৌলতপুর ইউনিয়ন পরিষদের বর্তমান চেয়ারম্যান মো: লুৎফুর রহমানের সঙ্গে মুঠোফোনে যোগাযোগ করলে তিনি জানান, বিষয়টি নিয়ে এলাকার লোকজনের মধ্যে উত্তেজনা দেখা দিয়েছে। শান্তি শৃঙ্খলা বজায় রাখতে এলাকার মুরুব্বিরা বৈঠক ডেকেছেন। আজ শনিবার সকালে দৌলতপুর পশ্চিমপাড়া জহিরুল ইসলামের বাড়িতে বৈঠক হওয়ার কথা।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © banglarprotidin.com
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebazarbanglaro4451