বুধবার, ২৯ জুন ২০২২, ১০:৩১ পূর্বাহ্ন

ঝিনাইদহের ঐতিহ্য রাকিব হাসান গোল্ডেন এ প্লাস পাওয়ার পরেও লেখাপড়া বন্ধের পথে ! দেখার কেউ নেই !

বাংলার প্রতিদিন ডেস্ক ::
  • আপডেট সময় শুক্রবার, ১৭ জুন, ২০১৬
  • ২০২ বার পড়া হয়েছে

স্টাফ রিপোর্টার, ঝিনাইদহ,

ঝিনাইদহের হরিনাকুন্ডু থানার আদর্শআন্দুলিয়া উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয়

থেকে এস এস সি পরীক্ষায় গোল্ডেন এ প্লাস পেয়েছেন তাহেরহুদা গ্রামের

নাসির উদ্দিন বকুলের ছেলে রাকিব হাসান।

Rakib Hasan-Jhenaidah (9)

সরেজমিনে সাংবাদিক জাহিদুর রহমান তারিক তাহেরহুদা গ্রাম ঘুরে ফিরে

রাকিব হাসানের বাড়ি গিয়ে দেখতে পান রাকিব হাসানের পিতা নাসির

উদ্দিন বকুলের দুই ছেলে ও স্ত্রী নিয়ে বসবাস, বাসাবাড়ির মধ্যে ছোট্ট

একটি কুড়ে ঘর ও একটি রান্না ঘর আছে। সেখানে শীতে-ঝড় বৃষ্টিতে

বসবাস সম্ভব না।

একটু বৃষ্টি হলেই ভেষে যায় রাকিবদের ছোট্ট ঘরখানি। তাছাড়া নাসির

উদ্দিন বকুল হরিনাকুন্ডু এলাকায় বিভিন্ন ডোবা নালায়,ক্যানালে,খালে

বিলে মাছ ধরে ধরে বাজারে বিক্রয় করে জীবিকা নির্বাহ করে। কখনও কখনও

সে পানের বোরজ ও কৃষি কাজ করেও সংসার চালায়। ঝিনাইদহের এই অমুল্য

রতন রাকিবও বাবার সাথে সাথে পরের জমিতে পান বোরজে-

কৃষিকাজ,ডোবা-নালায়,খালে-বিলেও কাজ করে।

কখনও কখনও রাকিবের পিতা নাসির অসুস্থ হয়ে পড়লে বা এই উপরোক্ত

কাজগুলো সাময়িকভাবে বন্ধ থাকলে মাঝে মাঝে অনাহারেও থাকতে হয় অভাগা

রাকিবের-কেঁদে কেঁদে কথাগুলো বলেছেন রাকিবের অভাগী মা রিতা খাতুন।

গরিব মানুষ বলেই কি তার ছেলে রাকিব গোল্ডেন এ প্লাস পেয়েও টাকার

অভাবে লেখাপড়া করতে পারবে না ? এ প্রশ্ন রাকিবের মা রিতা খাতুন ও

চাচা কুরবানের।

একটু জটিল কঠিন রোগব্যাধি হলে চিকিৎসার অভাবেই মরতে হবে বলে

জানিয়েছেন রাকিবের প্রতিবেশিরা। রাকিব হাসানের পিতা নাসির উদ্দিন

বকুল ছেলের লেখাপড়া শিখাতে গিয়ে হাফিয়ে উঠেছেন। রাকিবের পিতা

বলেন আমার আয় রোজগার যা হয় তা দিয়ে কোন মতেই রাকিবের ভালভাবে

লেখাপড়া করানো সম্ভবনা।

Rakib Hasan-Jhenaidah (13)

গ্রামবাসীরা জানিয়েছেন, অনেক কষ্ট কওে নাসিরউদ্দিন বকুল তার ছেলে

রাকিবকে মানুষের কাছ থেকে চেয়ে চেয়ে এনে,ধার-দিনা ,সুদে করে

রাকিব কে লেখাপড়া শিখায়ে মানুষের মত মানুষ করবেন কিšু‘ বিধির

বিধান রাকিব গোল্ডেন এ প্লাস পাওয়ার পরেও ঝিনাইদহ শহরের কেসি কলেজে

ভর্তি হতে পারছে না। রাকিব বলেন আমার প্রবল ইচ্ছা লেখোপড়া শিখে

অনেক বড় মানুষের মত মানূষ হয়ে দেশ ও জনগনের পাশে দাড়াব ইনশাল্লাহ্ধসঢ়;।

তাহেরহুদা গ্রামের রিনা ফার্মেসির মালিক সজল, অবসরপ্রাপ্ত মাষ্টার

আব্দুস সোবহান, নজরুল ইসলাম, হাসেম আলী মাষ্টার, সাব্বির মেম্বর,

আদর্শআন্দুলিয়া উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মাসুদুল হক

টিটু মাষ্টার সহ এলাকাবাসী জানিয়েছেন, নাসির উদ্দিনের ছেলে রাকিব

হাসান প্রচন্ড মেধাবী ও বুদ্ধিমান,ছোট্ট বয়স থেকেই লেখাপড়ার প্রতি

তার প্রবল ইচ্ছা, বর্তমানে গোল্ডেন এপ্লাস পেয়েও আর্থিক সংকটের

কারনে লেখাপড়া করতে পারছেনা রাকিব।

দেশ-বিদেশের কোন সুহৃদয়বান ব্যক্তি যদি অসহায় রাকিবের আর্থিক সাহয্য

করে ও পাশে দাড়ায় তাহলে রাকিব একদিন অনেক বড় মানুষের মত মানূষ হয়ে

দেশ ও জনগনের পাশে দাড়াবে।

রাকিবের পিতা নাসির উদ্দিন বকুলের সাথে যোগাযোগের জন্য

মুঠোফোন (বিকাশ) – ০১৭৬৬-৭৫৫ ০১৩ ,

রাকিবের গ্রামের সাব্বির মেম্বর – ০১৭৬৪-৩৮৭ ৮২৭

রাকিবের পিতা নাসির উদ্দিন বকুলের ব্যাংক একাউন্ট ,

মোঃ নাসির উদ্দিন,

সঞ্চয়ী হিসাব নম্বর-৩৩০৪১

ইসলামী ব্যাংক,

ঝিনাইদহ শাখা-ঝিনাইদহ

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © banglarprotidin.com
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebazarbanglaro4451