শুক্রবার, ২৭ মে ২০২২, ০৮:৫২ অপরাহ্ন

যৌতুকের টাকা না দেয়ায়­­­­­­­­­­ রূপগঞ্জে তিন গৃহবধুকে নির্যাতন ও শ্বাসরোধে হত্যার চেষ্টা

বাংলার প্রতিদিন ডেস্ক ::
  • আপডেট সময় সোমবার, ২০ জুন, ২০১৬
  • ২৬১ বার পড়া হয়েছে

নারায়নগঞ্জ প্রতিনিধি ঃ নারায়নগঞ্জের রূপগঞ্জে যৌতুকের টাকা না পেয়ে

̄^ামীসহ শশুরবাড়ির লোকজন সুমি আ৩ার (২২), রাহিমা বেগম রুমি (২৯) ও শেফালী

বেগম (২৬) নামে তিন গৃহবধুর উপর নির্যাতন চালিয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া

গেছে । এসময় দুই জনকে গামছা গলায় পেঁচিয়ে শ্বাস রোধে হত ̈ার চেষ্টা করা

হয়। সোমবার দুপুরে উপজেলার দক্ষিন হাটাব, বধাক্ষণখালী ও পিতলগঞ্জ ভ৩বাড়ি এলাকায়

ঘটে গৃহবধু নির্যাতনের ঘটনা। নির্যাতনের শিকার সুমি আ৩ার মতলব থানার

ফেইল্লাকান্দি এলাকার এরশাদ খানের মেয়ে, রাহিমা বেগম রুমি উপজেলার বধা২নখালী

এলাকার দেলোয়ার হোসেনের মেয়ে ও শেফালী বেগম রূপগঞ্জ সদর এলাকার হেলাল মিয়ার

মেয়ে ।

এরশাদ খান জানান, ৪ বছর আগে রূপগঞ্জ থানার হাটাব এলাকার আমির হোসেনের

ছেলে জসীম এর সাথে তার মেয়ে সুমি আ৩ারের বিয়ে হয় । বিয়ের সময় তিনি তার

মেয়েকে ঘরের আসবাবপত্র ও ফ্রিজসহ পধায় ২ লাখ টাকার মালামাল পধদান করে। বিয়ের

কিছুদিন পর ̄^ামী জসীমসহ, আল্লআমিন, হাজেরা বেগম, পাখি বেগম ২ লাখ

টাকা যৌতুক দাবি করে সুমি আ৩ারের কাছে। যৌতুকের টাকা দিতে অ ̄^ীকার

করলে সুমি আ৩ারকে বাড়িতে আটক রেখে তার পরিবারের সাথে কোন যোগাাযোগ

করতে দেওয়া হয় নি। সুমি আ৩ারের সাথে ফোনে যোগাযোগ কারতে চাইলে তার

ফোন বন্ধ পাওয়া যায়। মেয়ের কথা জানতে চাওয়া হলে তারা কিছু না জানে বলে

জানায় সুমি আ৩ারের শশুরবাড়ির লোকজন। ̄^ামী জসীমসহ, আল্লআমিন, হাজেরা

বেগম, পাখি বেগম গৃহবধু সুমি আ৩ারকে পিটিয়ে আহত করে বাড়ি থেকে বের

করে দিয়েছে। বর্তমানে সুমি আ৩ার নিখোঁজ রয়েছে। এ ঘটনায় রূপগঞ্জ থানায়

মামলা দায়ের করা হয়েছে।

অপরদিকে রাহিমা বেগম রুমি জানান, ১০ বছর আগে ঢাকা জেলার মোহাম্মদপুর

এলাকার মৃত কাশেম মিয়ার ছেলে আজিম মিয়ার সাথে তার বিয়ে হয়। বিয়ের পর

তাদের সংসারে ওয়াসিম খান (৮) নামে একটি পুত্র সন্তান জ ̄§ গ্রহন করে। সন্তান

জন্ম হওয়ার পর থেকেই তারা উপজেলার পিতলগঞ্জ এলাকায় বসবাস করে আসছেন।

বিয়ের বেশ কিছুদিন পর থেকেই ̄^ামী আজিজ মিয়া মাদকাস৩ হয়ে পড়েন। তাকে

মাদক সেবনে বাধা দিলে রাহিমা বেগম রুমিকে তার বাবার বাড়ি থেকে যৌতুক

এনে দিতে বলেন। সে অনেক বার টাকা এনে দিলেও সে ভাল হয়নি । তারপর থেকে আরো

বেশী মাদক সেবন করতে শুরু করেন। সোমাবার দুপুরে মাদক সেবনে বাধা দেওয়ায়

আজিজ মিয়া তাকে গামছা গলায় পেঁচিয়ে শ্বাসরোধে হত ̈ার চেষ্টা করে । তার

চিৎকার শুনিয়া প্রতিবেশীরা এগিয়ে আসলে সে বিভিন্ন ভয়ভিতি ও হত ̈ার হুমকী

দিয়ে চলে যায় মাদকাস৩ আজিজ মিয়া । এ ঘটনায় রূপগঞ্জ থানায় অভিযোগ দায়ের

করা হয়েছে।

হেলাল মিয়া জানান, দুই বছর আগে উপজেলার বাড়িয়াছনি এলাকার ফারুক মোল্লার

ছেলে শওকত মিয়ার সাথে তার মেয়ে শেফালী বেগমের সাথে বিয়ে হয়। মেয়ের সুখের

কথা চিন্তা করে জামাতা শওকত মিয়াকে একটি অটো রি∙া কিনে দেন হেলাল মিয়া।

বিয়ের কিছুদিন পরেই তাদের ঘরে একটি কন ̈া সন্তানের জন্ম হয়। সন্তান জন্মের পর

থেকেই শওকত মিয়া বিভিন্ন ধরনের মাদক দধব ̈ সেবন করতে শুরু করেন । এছাড়া মাদক

না টাকা না দিলে তার বাবার বাড়ি থেকে টাকা এনে দিতে বলত আর শেফালী বেগমের

নির্যাতন চালাত। সোমবার দুপরে মাদক কেনার টাকা না পেয়ে শেফালী বেগমকে তার

বাবার বাড়ি থেকে যৌতুকের টাকা এনে দিতে বলে। টাকা এনে দিতে পারবে না

বলে সাফ জানিয়ে দেয় শেফালী বেগম। এক পর্যায়ে ̄^ামী শওকত মিয়াসহ, ফারুক

মোল্লা ও সাফিয়া বেগম তাকে পিটিয়ে শরীরের বিভিন্ন ̄’ানে নীলাফুলা জখম করে

। এক পর্যায় ̄^ামী শওকত মিয়া শেফালী বেগমকে গলাটিপে ও গলায় ওড়না পেঁচিয়ে

শ্বাসরোধে হত ̈ার চেষ্টা করে। এসময় চিৎকারে এলাকাবাসী এসে তাকে উদ্ধার করে ।

এ ঘটনায় রূপগঞ্জ থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

এ বিষয়ে রূপগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ইসমাইল হোসেন বলেন, পৃথক ঘটনায়

একটির মামলা হয়েছে। বাকি দুই ঘটনায় তদন্ত মোতাবেক মামলা রুজু করা হবে।

অভিযু৩দের আটকের চেষ্টা চলছে। 

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © banglarprotidin.com
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebazarbanglaro4451