বুধবার, ১০ অগাস্ট ২০২২, ০১:৪৩ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম ::

গাইবান্ধার লক্ষ্মীপুর কালিমন্দিরে কালি প্রতিমা ভাংচুর ॥ ৪ জেএমবি সদস্য আটক

বাংলার প্রতিদিন ডেস্ক ::
  • আপডেট সময় রবিবার, ৯ অক্টোবর, ২০১৬
  • ২১১ বার পড়া হয়েছে

 

শেখ হুমায়ুন হক্কানী গাইবান্ধা থেকে ঃ গাইবান্ধা সদর উপজেলার লক্ষ্মীপুরের

কামারপাড়া সড়ক সংলগ্ন কালিমন্দিরে রক্ষিত কালি প্রতিমা রোববার ভোরে

ভাংচুর করেছে দুর্বৃত্তরা। পুলিশ এ অভিযোগে সুন্দরগঞ্জ উপজেলার

ছাপড়হাটি ইউনিয়নের মন্ডলেরহাট থেকে ৪ নব্য জেএমবি সদস্যকে

গ্রেফতার করেছে। এসময় লাল রংয়ের একটি মটর সাইকেল, হাতুর, দা, সাবল,

কাঁস্তে, রেঞ্জ, পাস, করাত, টর্চলাইট এবং তাদের হাতে লেখা মন্দিরে ভাংচুর

সংক্রান্ত নব্য জেএমবির হুমকি প্রদান বিষয়ক একটি চিঠি উদ্ধার করা

হয়েছে। গ্রেফতারকৃতরা হলো- গাইবান্ধা-২ (সদর) আসনের সাবেক এমপি

মেজর (অবঃ) আসগর আলী খানের ভাস্তে সুন্দরগঞ্জের ছাপড়হাটি ইউনিয়নের

খানপাড়া পশ্চিম ছাপড়হাটী গ্রামের ইউসুফ খানের ছেলে ফয়সাল খান ফাগুন

(১৭), একই গ্রামের আব্দুল ওয়াহাবের ছেলে নজরুল ইসলাম খান (৩৫), আব্দুল

হামিদ মিয়ার ছেলে আশিকুল ইসলাম (১৬) ও আদর আলীর ছেলে শহিদ মিয়া

(১১)। গ্রেফতারকৃতরা মটর সাইকেলে এসে মন্দিরের কালি প্রতিমা ভেঙ্গে

সেখানে একটি নব্য জেএমবি কর্তৃক দায় স্বীকার সংক্রান্ত হাতে লেখা

একটি চিঠি রেখে পালিয়ে যায়। পরে যাওয়ার পথে পুলিশের হাতে ধরা পড়ে।

প্রসঙ্গত উলেখ্য যে, পুলিশের কাছে স্বীকারোক্তিতে জেএমবি’র সদস্যরা

বলেছেন, এর আগে শনিবার রাতে মটর সাইকেল যোগে গিয়ে পশ্চিম

ছাপড়হাটি ডুরামারি গ্রামে নরেন্দ্র চন্দ্র বর্মণের বাড়ির কালিমন্দিরে

আগুন দিয়ে পুড়ে দেয়। এছাড়া ২২ সেপ্টেম্বর গভীর রাতে সাদুল্যাপুর উপজেলার

কামারপাড়া ইউনিয়নের পূর্ব কেশালী ডাঙ্গা সার্বজনিন মন্দিরেরও মুর্তি

ভাংচুর করে। একইদিনে আরেকটি মন্দিরের প্রতিমা ভাংচুরেরও পরিকল্পনা ছিল

তাদের। কিন্তু তার আগেই তারা পুলিশের হাতে ধরা পড়ে।

এব্যাপারে পুলিশ সুপার মো. আশরাফুল ইসলাম জানান, রোববার জেলা আইন

শৃংখলা কমিটির সভায় এবং তার অফিসের সম্মেলন কক্ষে সাংবাদিকদের

কাছে এক প্রেস বিফিংয়ে এ তথ্য জানান।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © banglarprotidin.com
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebazarbanglaro4451