শুক্রবার, ০৫ অগাস্ট ২০২২, ০৪:৩২ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম ::

তাহিরপুরে ওসি শহীদুল্লাহকে বিদায় সংবধনা অনুষ্টানে হাজারো মানুষের ঢল

বাংলার প্রতিদিন ডেস্ক ::
  • আপডেট সময় শুক্রবার, ৭ অক্টোবর, ২০১৬
  • ১৭৬ বার পড়া হয়েছে

জাহাঙ্গীর আলম ভূঁইয়া,সুনামগঞ্জঃ

সুনামগঞ্জ জেলার তাহিরপুর উপজেলার ওসি মোহাম্মদ শহীদুল্লাহর

বিদায় সংবধনা অনুষ্টান অনষ্টিত হয়েছে। আজ বৃহস্পতিবার

সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় তাহিরপুর পূর্ব বাজারে অনুষ্টিত সংবধনা

অনুষ্টানে উপজেলার জনমানুষের প্রিয় ব্যক্তি,পরম বন্ধু ও সর্ব স্থরের

জনাসাধারনের সহযোগী,সাদা মনের মানুষ তাহিরপুর থানার ওসি

মোহাম্মদ শহীদুল্লাহ হঠাৎ করেই বদলী হওয়াতে আজ সন্ধ্যায় এক

মুহুর্তেই বিদায় সংবধনার আযোজন করেছে আমরা হাওর বাসীর

ব্যানারে তাহিরপুর উপজেলাবাসী। এসময় হাজার হাজার মানুষের ঢল

নামে বিদায় অনুষ্টানে। অনুষ্টানে উপজেলা আ,লীগের সহ সভাপতি

নুরুল আমিন সোহেলের সভাপতিতে বিদায়ী ওসি মোহাম্মদ

শহীদুল্লাহ বলেন,আমি আপনাদের কাছে আপনাদের পরিবারের সদস্য

হয়েই আপনাদের সহযোগীতা নিয়েই আপনাদের এলাকার

উন্নয়নের জন্য সর্ব রখম চেষ্টা করেছি আমার স্বার্ধ মত। জানি

না কত টুকু করতে পেরেছি ডাই করেছি সব আপনাদের

সহযোগীতায় হয়েছে। আমি মদ,জুয়া ও চোরাচালান সহ সকল

প্রকার অন্যায় প্রতিরোধে আইনশৃংখলা রক্ষা করতে চেষ্টা করেছি।

মাদক মুক্ত বাল্য বিবাহ বন্ধ করেছি তার আপনাদের আন্তরিকতা ও

সহযোগীতার কারনে। এখন এই সফলতা আপনাদেরকেই রক্ষা করতে

হবে। আমি চলে গেলেও যেই ওসি সাবেব আসুক আপনারা

মদ,জুয়া প্রতিরোধে ঐক্যবদ্ধ হয়ে মদ খাবে ও জুয়া খেলবে তাদের

ধরে বেধেঁ রেখে পুলিশ কে খবর দিবেন। আমি আপনাদের দেওয়া এই

বিদায় সংবধনার এই দিনটা ভুলতে পারব না আমার জীবনে স্বরনীয়

হয়ে থাকবে। তাহিরপুর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান কামরুজ্জামান

কামরুল বলেন,শহীদুল্লাহ ছিলেন তাহিরপুর উপজেলার

মাদক,চোরাচালানীদের কাছে এক আতœকের নাম। যার জন্য আজ

উপজেলা মদ,জুয়া,চোরাচালান একে বারেই বন্ধ হয়েছে। তিনি যে

তাহিরপুর থানার ওসি ছিলেন না তিনি সবার পরম বন্ধু হিসাবে

উপজেলার সকল ক্ষেত্রেই তার নিখুত কাজের মাধ্যমে নিজেকে

বিলিয়ে দিয়ে এক পরিবারে সদস্যের মত থেকেছেন। উনার কাছে

আমরা ছিলাম ভাই,বন্ধু পরম আতœার আতœীয়। তার কর্মের জন্য

আমাদের মনের মধ্যে তিনি থাকবেন চির কাল। সবাই চলে যায়

যাবে এটাই নিয়ম কিন্তু ওসি শহীদুল্লাহ চলে যাওয়া টা আমরা

মেনে নিতে না পালেও মেনে নিতে হবে। সরকারী চাকুরী করায় বদলী

হতে হবে এটাই নিয়ম তাই আমরা সবাই তার সুস্বাস্থ্য ও

র্দীঘায়ু কামনা করছি। এছাড়াও অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য

রাখেন,উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান ফেরদৌস আলম আখঞ্জি,তাহিরপুর

উপজেলা সদর চেয়ারম্যান বোরহান উদ্দিন,উপজেলা সদরের ৩বারের

সাবেক চেয়ারম্যান আব্দুল জলিল তারুকদার,উপজেলা আ,লীগের

সিনিয়র সহ সভাপতি অধ্যাপক আলী মতুর্জা,তাহিরপুর উপজেলা

ক্রিয়া সংস্থার সাধারন সম্পাদক হাফিজ উদ্দিন,রমেন্দ্র নারায়ন

বৈশাখ,সাংবাদিক আমিনুল ইসলাম,বারুল হাসান বাবলু,উপজেলা

ছাত্রদল সভাপতি মেহেদী হাসান উজ্জল,তাহিরপুর বাজার বনিক

সমিতির সভাপতি দিলীপ কুমার চন্দ্র,তাহিরপুর বাজার বনিক

সমিতির সাধারন সম্পাদক এরশাদ আলীর, শ্রমিক দলের সাধারন

সম্পাদক এমদাদুল হুদা প্রমূখ। এছাড়াও অন্যানের মধ্যে উপস্থিত

ছিলেন,উপজেলার কর্মরত সাংবাদিক বৃন্ধ,বাদাঘাট ইউনিয়ন পরিষদ

চেয়ারম্যান আপ্তাব উদ্দিন,দক্ষিন বড়দল ইউয়িন পরিষদ চেয়ারম্যান

আজর আলী,উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নের মেম্বারগন,উপজেলা

বিভিন্ন রাজনৈতিক,সামাজিক,সাংস্কৃতিক দলের নেতৃবৃন্ধ

সহ উপজেলার সর্ব স্থরের গন্যমান্য ব্যক্তিগন। বক্তারা এসময় বিদায়

অতিথির শহীদুল্লাহ দীর্ঘ ২বছরের উপজেলা তার কার্যক্রমের

প্রশংসা করেন। সরকারী চাকুরী করায় বদলী একটি সহজ বিষয় তাই

সবাই তার ও পরিবারের সকল সদস্যের সুস্বাস্থ্য ও র্দীঘায়ু কামনা

করেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © banglarprotidin.com
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebazarbanglaro4451