মঙ্গলবার, ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৭:২১ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম ::

লালপুরে ইউএনও’র হস্তক্ষেপে বাল্য বিয়ে থেকে রক্ষা পেল ৪র্থ শ্রেণীর ছাত্রী সুমা খাতুন মেয়ের বাবা সহ ৩ জনের কারাদন্ড

বাংলার প্রতিদিন ডেস্ক ::
  • আপডেট সময় শনিবার, ২৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৬
  • ১০০ বার পড়া হয়েছে

মো. আশিকুর রহমান (টুটুল),নাটোর জেলা প্রতিনিধি

নাটোরের লালপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসারের হস্তক্ষেপে বাল্য বিয়ের

হাত থেকে রক্ষা পেয়েছে উপজেলার মাঝগ্রাম ধনুরমোড় এবতেদায়ী

মাদ্রাসার ৪র্থ শ্রেণির ছাত্রী সুমা খাতুন (১১)। এ ঘটনায় শনিবার

মেয়ের বাবা শাহাদত হোসেন, বরের চাচাত দুলাভাই মুক্তা হোসেন (২৫) ও

বরযাত্রি আবু তাহের শেখকে (৬৫) ১মাস করে বিনাশ্রম কারাদন্ডাদেশ

দিয়েছেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার নজরুল

ইসলামের ভ্রম্যমাণ আদালত।

জানা গেছে, শুক্রবার টাঙ্গাইল জেলার ভূঁয়াপুর উপজেলার বামনহাটা

গ্রামের হিকেম আলীর ছেলে নূর হোসেন (২০) তার চাচাত দুলাভাই

মুক্তার হোসেন সহ ৮/৯ জন বরযাত্রী নিয়ে লালপুর উপজেলার মাঝগ্রাম

পশ্চিমপাড়া গ্রামের শাহাদত হোসেনের ৪র্থ শ্রেণি পড়–য়া সুমা

খাতুনকে বিয়ের জন্য তার বাড়িতে আসে। প্রতিবেশীরা টের পেয়ে

বিষয়টি লালপুর উপজেলা নির্বাহী আফিসার নজরুল ইসলামকে জানান।

তিনি স্থানীয় দুয়ারিয়া ইউপি চেয়ারম্যান নরুল হোসেন লাভলুর

সহযোগীতায় বরের দুলাভাই মুক্তার হোসেন, বরযাত্রী আবু তাহের শেখ,

মেয়ে সুমি খাতুন ও তার বাবা শাহাদত হোসেনকে উপজেলা পরিষদে

নিয়ে আসেন। এসময় বর নূর হোসেন সহ আন্যরা পালিয়ে যায়।

সুমি খাতুনকে তার চাচা সাধু শেখ ও স্থানীয় ইউপি সদস্য ইকরামুল

ইসলামের জিম্মায় রাখা হয়।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © banglarprotidin.com
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebazarbanglaro4451