বুধবার, ১৯ জুন ২০২৪, ০৫:২৮ অপরাহ্ন

ময়মনসিংহে মাজহারুলের লাশ মিলল মেসে বিয়ের দিন দুপুরে

অনলাইন ডেক্স
  • আপডেট সময় শনিবার, ২ সেপ্টেম্বর, ২০২৩
  • ৪৮ বার পড়া হয়েছে
গত সপ্তাহে কর্মস্থল থেকে ছুটিতে এসে পরিবারের সঙ্গে কনে দেখে পছন্দ হয় মাজহারুলের (২৪)। এ অবস্থায় দিন তারিখ ধার্য্য ছিল গতকাল শুক্রবার। আনুষ্ঠানিকতা শেষে কনে তুলে নিয়ে আসবে। ফের কর্মস্থলে গিয়ে গুছগাছ করে বাড়িতে আসার কথা আগের দিন রাতে।

কিন্তু তার আর বাড়িতে আসা হলো না। একাধিক ফোনে সাড়া না পাওয়ায় অবশেষে পরিবারের লোকজন শুক্রবার সেখানে গিয়ে সন্ধান করে দেখতে পায় কর্মস্থলের কাছে ভাড়া মেসের ভেতর ফাঁসিতে ঝুলে আছে মাজহারুল ইসলাম। 

নিহত মাজহারুল ইসলাম হচ্ছেন ময়মনসিংহের নান্দাইল উপজেলার কাঠলিপাড়া মাতারবাড়ি গ্রামের মো. ইব্রাহিমের ছেলে। তার চার ভাই ও দুই বোন।

গত প্রায় দুই বছর আগে ওয়ালটন কম্পানিতে চাকরি হয় তার। গাজীপুরের কালিয়াকৈরে তার কর্মস্থল ছিল। সেখানের হাজীরবাড়ি কলোনিতে ভাড়া মেসে বসবাস করতেন। তার বড় ভাই আনসারুল ইসলাম জানান, গত সপ্তাহে তার ভাই মাজহারুল ইসলাম ছুটি নিয়ে বাড়িতে আসে।
পরে পরিবারের সম্মতি নিয়ে কনে দেখতে উপজেলার শেরাপুর ইউনিয়নের একটি গ্রামে যায়। সেখানে কনে দেখে পছন্দের পর মাজহারুলের মতামত নিয়ে বিয়ের দিন তারিখ ধার্য্য করা হয়। 

শুক্রবার (১ সেপ্টেম্বর) ছিল কনের বাড়িতে গিয়ে বিয়ে কার্য সম্পন্ন করে কনে নিয়ে আসার দিন। এ অবস্থায় মাজহারুল কর্মস্থলে গিয়ে ছুটি নিয়ে ফের বাড়িতে চলে আসবে একদিন আগেই। আর এদিকে বিয়ের সকল প্রস্তুতিও শেষ করা হয়।

কনের জন্য লাল বেনারসি শাড়ি ছাড়াও বিভিন্ন ধরনের অলঙ্কারসহ আনুষাঙ্গিক সবকিছুই সম্পন্ন করা হয়। এর মধ্যে গত বুধবার সকাল ১১টার দিকে মাজহারুল খোঁজও নেয় বিয়ের বাজার সদাই শেষ হয়েছে কিনা। রাত ১২টার দিকে মায়ের সঙ্গে কথাও হয় তার। বৃহস্পতিবার দুপুরে বাড়ির দিকে রওনা হবে। পথে গাজীপুরেই অবস্থান করা বোনদের সঙ্গে করে নিয়ে আসবে। সেও অনেক বাজার করেছে। 

এরপর থেকে তার মোবাইলে কল গেলেও রিসিভ করেনি। এভাবে পরদিন সকাল থেকে থেমে থেমে কল করা হলেও রিং বাজলেও কেউ রিসিভ করেনি। এ অবস্থায় বিষয়টি নিয়ে পরিবারের মধ্যে উদ্বেগ উৎকণ্ঠার সৃষ্টি হয়। এ অবস্থায় গত বৃহস্পতিবার রাতে একটি প্রাইভেটকার নিয়ে কালিয়াকৈরের ওই জায়গায় সন্ধান করলে জানা যায় গত দুই মাস আগে মাজহারুল পুরাতন মেস ছেড়ে অন্যত্র অবস্থান করছে। কিন্তু সঠিক ঠিকানা না পাওয়ায় রাতভর চেষ্টা করেও কোনো সন্ধান করা যায়নি। পরে শুক্রবার দুপুরে সন্ধান পাওয়া যায় হাজীবাড়ি কলোনির একটি মেসের দরজা বাহির থেকে বন্ধ। খবর পেয়ে পুলিশ গিয়ে দরজা ভেঙে ভেতরে প্রবেশ করে দেখতে পায় মাজহারুলের দেহ বিছানার ওপর ফাঁসিতে ঝুলে আছে। তার দুই পা বিছানায় লাগানো ছিল। পাশেই একটি বড় ব্যাগে নিজের কাপড়-চোপড় ছাড়াও রয়েছে বিয়ের আরো বাজার। এ ঘটনায় পুলিশ লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়।

খবর পেয়ে নিহত মাজহারুলের বাড়িতে গিয়ে দেখা যায় পুরো বাড়িতে শোকের ছায়া। কান্নার রোল। বাড়িটির চারদিকে পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন পরিপাটি। ঘরের একটি জায়গায় সাজিয়ে রাখা হয়েছে বিয়ের সব ধরনের সরঞ্জাম। এই গুলি নিয়ে মায়ের আহাজারি চলছে। কোনো শান্তনাই মাকে বুঝাতে পারছে

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © banglarprotidin.com
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebazarbanglaro4451