সোমবার, ২৭ জুন ২০২২, ০৭:৪৬ পূর্বাহ্ন

সন্ত্রাসী কর্তৃক নির্যাতন ও হামলায় অকালে মৃত্যু থেকে বাঁচতে হলে সকল সাংবাদিকদের ঐক্যবদ্ধ হওয়া জরুরী!

বাংলার প্রতিদিন ডেস্ক ::
  • আপডেট সময় মঙ্গলবার, ৩০ আগস্ট, ২০১৬
  • ১৩৬ বার পড়া হয়েছে

হেলাল শেখ ঃ

রাজধানী ঢাকাসহ সারাদেশে সন্ত্রাসী কর্মকান্ড বাড়ছে। সন্ত্রাসী কর্তৃক নির্যাতন ও বিভিন্ন

হামলায় অকালে মৃত্যু থেকে বাঁচতে হলে সকল সাংবাদিকদের ঐক্যবদ্ধ হওয়া জরুরী। সাংবাদিক কোনো

প্রতারক নয়, সাংবাদিক দেশ ও জাতির বিবেক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন বলেই সাধারণ মানুষ অনেকটা

স্বাধীন।

বিশেষ করে ১/ সাংবাদিক মানে জাতির বিবেক, ২/ সাংবাদিক মানে দেশ প্রেমিক, ৩/ সাংবাদিক মানে

কলম সৈনিক, ৪/ সাংবাদিক মানে জাতির সেবক, ৫/ সাংবাদিক মানে সমাজের দর্পন, ৬/ সাংবাদিক মানে

স্বাধীন, ৭/ সাংবাদিক মানে সম্মানী ব্যক্তি, ৮/ সাংবাদিক মানে তদন্ত করে প্রকাশ করা, ৯/ সাংবাদিক

মানে আইন বিষয়ে জানা, ১০/ সাংবাদিক মানে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে সহযোগীতা করা। ২ থেকে ৪

লাইন লিখতে পারলেই সাংবাদিক হওয়া যায় না। হিংসা বিবাদ করে সাংবাদিক কখনো দেশও জাতির কল্যাণ

করতে পারে না। সাংবাদিক হলেই দেশের বিরুদ্ধে সংবাদ প্রকাশ করা ঠিক নয়। যার দেশ ও জাতির প্রতি

ভালোবাসা নেই.সেইতো পারে হিংসা বিবাদ করতে। জাতীয় প্রেসক্লাব ও স্থানীয় প্রেসক্লাবের সকল

সাংবাদিক যদি একতা ভাবে থাকেন, তাহলে এমন কোনো শক্তি নেই সাংবাদিককে মারবে, এমন কি

সাংবাদিকের বিরুদ্ধে কেউ হামলা, মামলা করবে এমন সাহস কেউ পাবে না।

বিশেষ করে বর্তমানে দেখা যায়, প্রায়ই সাংবাদিক সন্ত্রাসীদের হামলার শিকার হচ্ছেন। হামলা,

মামলা, নির্যাতন, এমন কি হত্যার শিকারও হচ্ছেন সাগর রুনী মতো অনেক সাংবাদিক। এর মূল কারণ হলো,

সাংবাদিকরা একতা নেই। আমার প্রশ্নঃ কবে, কখন, কিভাবে সাংবাদিকরা রসুনের কোয়ার মতো এক সঙ্গে

মিলেমিশে মহৎ এই পেশায় দায়িত্ব পালন করবেন ? আর কতো নির্যাতনের শিকার হবে এই দেশের

সাংবাদিকরা ? “হায় সাংবাদিকতা”! দেশের অনেক লেখক ও সচেতন মহলের অভিমত, সাংবাদিকরা যদি

সঠিক ভাবে কাজ না করতেন, চোর, ডাকাত, চাঁদাবাজরা দেশের সাধারণ মানুষের রক্ত মাংস খেয়ে মেরে

ফেলতো!

বাংলাদেশে ১৬ কোটি মানুষ তাদের ১৬ কোটি মন, আর ১৬ কোটি মনের মানুষের সবার মন জয় করা সম্ভব হয় কি? সরকারি কর্মকর্তাদের বেতন বৃদ্ধি করার পরও অনিয়ম, দুর্নীতি করে সরকারের ভাবমূর্তি নষ্ট করছে।

অনেক পুলিশ প্রশাসন ও বিভিন্ন কর্মকর্তা সরকারী নীতিমালা মানছে না। কিছু কর্মকর্তা দেশ ও

জাতির অর্থ সম্পদে নিজে কোটি কোটি টাকার মালিক হয়। তারা দেশ ও জাতির কল্যানে কিছুই করছেন

না। আরও সরকারের বদনাম হয় সেই কাজ কর্ম বেশি করছে, এটা কি ঠিক? “ধন্যবাদ জানাই বর্তমান

সরকারের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে, তিনি সফল সরকার ও বাংলাদেশের সফল নেতা। ধন্যবাদ জানাই, পুলিশ

কর্মকর্তাদের নীতিবান পুলিশ অফিসারদের। আরও অনেক ব্যক্তি

আছেন, তাদের নাম বলা ঠিক হবে না। তেমনি আমাদের দেশে বর্তমানে ৮টি বিভাগ ও ৬৪ টি জেলায় অনেক

পত্রিকার প্রকাশক/ সম্পাদক আছেন, তাদের নিয়মনীতি অনেক ভালো, তাদের প্রতিষ্ঠানে কাজ করে

সাংবাদিকরা অনেক নাম করেছেন। সকল সম্পাদক ও সাংবাদিকদের দাবির কথা চিন্তা করেই “প্রধানমন্ত্রী শেখ

হাসিনা” তার নিজ কার্যালয়ে গত ২৪/০৮/২০১৬ ইং কিছু অসচ্ছল ও নিহত সাংবাদিক পরিবারের সদস্যদের

মধ্যে অনুদানের চেক বিতরণ করেছেন। একটি জাতীয় দৈনিক পত্রিকায় দেখলাম,“সব সাংবাদিক হত্যার

বিচার হবেঃ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সাংবাদিক সমাজকে আশ্বাস দিয়ে তাই বলেছেন” তবে

সাংবাদিক হত্যার বিচারের জন্য সবার সহযোগিতা দরকার। আমি আগেও বলেছি, সকল সাংবাদিককে

ঐক্যবদ্ধ হওয়া জরুরী। পুলিশের মতো সাংবাদিকরা বেতন দেশে ৯০% দুর্নীতি কমে যাবে। বিশেষ করে দুষ্টচক্র

বা দল ও সামাজিক বিশৃঙ্খলা সৃষ্টিকারী কোনো কিছুর সাথে নিজেকে জড়ানো যাবে না এবং যারা দেশ

বিরোধী কাজ করে তাদের সম্পর্কে সতর্ক ও সজাগ থাকতে হবে সবাইকে। আবার বলছি, এর জন্য সবাইকে

ঐক্যবদ্ধ হওয়া দরকার। উক্ত ব্যাপারে ধারাবাহিক প্রতিবেদন প্রকাশ করা হবে। সকল সাংবাদিক ঐক্যবদ্ধ হও, তা না

হলে সাংবাদিকরা সন্ত্রসীদের হামলা ও নির্যাতন থেকে রেহাই পাবেন না।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © banglarprotidin.com
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebazarbanglaro4451