বুধবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৪, ০৮:৫৪ অপরাহ্ন

তাড়াশ উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসের সহকারী তোফাজ্জলের ঘুষ বানিজ্যের অভিযোগ

বাংলার প্রতিদিন ডেস্ক ::
  • আপডেট সময় বৃহস্পতিবার, ২ ফেব্রুয়ারী, ২০১৭
  • ১৫৮ বার পড়া হয়েছে

 

 

সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি ঃ

সিরাজগঞ্জের তাড়াশ উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা

অফিসের অফিস সহকারী তোফাজ্জল হোসেন এর বিরুদ্ধে ঘূষ দূর্নীতি ও

স্থানীয় প্রভাব দেখানো এবং শিক্ষকদের সাথে খারাপ আচরণসহ বিভিন্ন

অনিয়মের লিখিত অভিযোগ পাওয়া গেছে । ৩০ জন শিক্ষকের স্বাক্ষরিত এই

লিখিত অভিযোগের বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার সুপারিশ ও করেছেন

স্থানীয় সংসদ সদস্য । লিখিত অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, উপজেলার বিভিন্ন

প্রাথমিক বিদ্যালয় হতে আগত শিক্ষকদের ইনক্রিমেন্ট, সার্ভিস বুক হাল করা,

শিক্ষাভাতা ও বেতন ভাতাদি প্রদানের কাজে অফিসসহকারী তোফাজ্জল

হোসেনের নিকট গেলে টাকা ছাড়া কাজ করে না । যে সকল শিক্ষক টাকা দেয়

তাদের কাজ করেন এবং যে সকল শিক্ষকগণ টাকা দেন না তাদের বলেন আমার

সাথে যোগাযোগ করেন আগামী মাসে কাজ হয়ে যাবে । অভিযোগে

শিক্ষকরা আরো বলেন তোফাজ্জল হোসেন স্থানীয় বাসিন্দা হওয়ার প্রভাব

দেখিয়ে শিক্ষকদের সাথে খারাপ আচরণ ও গালিগালাজ করে এবং দাম্ভিকতার

সাথে শিক্ষকদের হুমকি দেয় আমার সাথে বাড়াবাড়ি করলে সার্ভিস বুকে এমন

কাজ করব চাকরির শেষ জীবনে বুঝবে তোফাজ্জল কি জিনিস ।

শিক্ষক সমিতির সভাপতিরা এবিষয়ে উপজেলা শিক্ষা অফিসারকে জানালেও তিনি প্রতিকার

নিতে অপারগতা প্রকাশ করেন । অভিযোগএর প্রথম স্বাক্ষরকারী নতুন

জাতীয়করণ কৃত শিক্ষক সমিতির সভাপতি পতিরামপুর সরকারী প্রাথমিক

বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রফিকুল ইসলাম জানান তোফাজ্জল হোসেন লক্ষ লক্ষ

টাকা ঘূষ আদায় করছে এবং সে বলে আমি নগদে বিশ্বাসি ।

অভিযোগেআরো বলা হয় যেকোন বিল , সার্ভিস বুক ও বকেয়া বিলের জন্য

প্রতিনিয়ত টাকা আদায় করছে। এবং তোফাজ্জল হোসেন প্রতিদিনসকাল

১০টায় অফিসে আসেন এবং দুপুর ১টায় বাসায় গিয়ে ৪টার পরে আসেন

এবং এ বিষয়ে কাউকে পরোয়া করেন না বলে অভিযোগে উল্লেখ করেন। রফিকুল

ইসলাম, আরশেদ আলী, হাফিজুর রহমান, আবু বক্কর সিদ্দিক, মোহাম্মদ আলী

জিন্নাহ, আব্দুল হামিদ, খলিলুর রহমান, মোছাঃ জেসমিন আরা, শাহাজাহান

আলী,, সাদিয়া মোস্তারি, শামসুল হকসহ ৩০জন শিক্ষকের নাম স্বাক্ষর, মোবাইল

নম্বর ও প্রতিষ্ঠানের নাম উল্লেখ করে এবং অভিযোগ পত্রে স্থানীয় সংসদ সদস্য

গাজী ম,ম আমজাদ হোসেন মিলন এর সুপারিশসহ জেলা প্রাথমিক শিক্ষা

অফিসার বরাবর অভিযোগ প্রেরণ করা হয়েছে । এ ব্যাপারে জেলা প্রাথমিক

শিক্ষা অফিসার সিদ্দিক মোহাম্মদ ইউসুফ রেজা মোবাইলে জানান, তিনি

মাত্র ২দিন পূর্বে যোগদান করেছেন এ বিষয়ে খোঁজ নিয়ে ব্যবস্থা নিবেন ।

অভিযুক্ত তোফাজ্জল হোসেন কে অভিযোগের ব্যাপারে জানতে চাইলে বলেন

তিনি সমস্ত অভিযোগ অস্বীকার করেন ।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © banglarprotidin.com
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebazarbanglaro4451