শনিবার, ২৮ নভেম্বর ২০২০, ০১:৫৭ পূর্বাহ্ন

জবি ছাত্রী তিথী কারাগারে :ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাতের অভিযোগে

বাংলার প্রতিদিন ডেস্ক
  • আপডেট টাইম শনিবার, ১৪ নভেম্বর, ২০২০
  • ৯ বার পড়া হয়েছে

ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাতের অভিযোগে করা মামলায় জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) সাময়িক বহিষ্কৃত ছাত্রী তিথী সরকারকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। আজ শনিবার ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট শহিদুল ইসলাম এই আদেশ দেন।

আদালতের সাধারণ নিবন্ধন কর্মকর্তা (জিআরও) মোহাম্মদ শাহআলম এনটিভি অনলাইনকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, পল্টন থানায় করা মামলায় একদিনের রিমান্ড শেষে আজ তিথী সরকারকে কারাগারে আটক রাখার আবেদন করেন তদন্ত কর্মকর্তা। শুনানি শেষে বিচারক আসামিকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

এর আগে গত ১২ নভেম্বর ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাতের অভিযোগে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় তিথী সরকারকে এক দিনের রিমান্ড দেন আদালত। একই মামলায় তাঁর স্বামী শিপলু মল্লিককে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট জিয়াউর রহমান।

তিথী সরকারকে গত ১১ নভেম্বর বিকেল পৌনে ৪টার দিকে নরসিংদী থেকে গ্রেপ্তার করে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ (সিআইডি)। সেদিন দুপুর পৌনে ১২টার দিকে তাঁর স্বামী শিপলু মল্লিককে রাজধানীর গুলিস্তান থেকে গ্রেপ্তার করা হয়।

মামলার নথি থেকে জানা গেছে, গত ৩১ অক্টোবর সিআইডির সাইবার মনিটরিং টিম লক্ষ্য করে, সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ‘ফেসবুকে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী তিথী সরকারকে সিআইডির মালিবাগ অফিসের চারতলা থেকে হাত-পা বাঁধা অবস্থায় উদ্ধার’ শীর্ষক একটি মিথ্যা পোস্ট শেয়ার করা হয়। এই সংবাদটি দ্রুত বিভিন্ন ফেসবুক আইডি ও পেজে ভাইরাল করা হয়। প্রকৃতপক্ষে সিআইডির অভ্যন্তরে এ রকম কোনো ঘটনা ঘটেনি।

আরো জানা যায়, এসব গুজব রটনাকারীর বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য কার্যক্রম শুরু করে সাইবার পুলিশ, সিআইডি। এরই ধারাবাহিকতায় গত ২ নভেম্বর রাজধানীর রামপুরাস্থ বনশ্রী এলাকা থেকে অন্যতম গুজব রটনাকারী নিরঞ্জন বড়ালকে (৫০) শনাক্ত ও গ্রেপ্তার করে সাইবার পুলিশ সেন্টার। এ বিষয়ে নিরঞ্জন বড়ালসহ অজ্ঞাত পরিচয় আরো কয়েকজনের বিরুদ্ধে পল্টন থানায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে একটি মামলা করা হয়।

এজাহারে বলা হয়েছে, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণিবিজ্ঞান বিভাগের ২০১৭-১৮ শিক্ষাবর্ষের ছাত্রী তিথী সরকার তাঁর ফেসবুক আইডি ব্যবহার করে বিভিন্ন সময়ে ধর্মীয় উসকানিমূলক বিভিন্ন পোস্ট, কমেন্ট ও তথ্য শেয়ার করেন, যার ফলশ্রুতিতে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ ছাত্রছাত্রীবৃন্দ তার বিরুদ্ধে আন্দোলন ও সমাবেশ করে। এ সম্পর্কিত ভবিষ্যৎ বিপদ এড়াতে এবং নিজেকে নিরাপদ রাখতে তার সংগঠনের কিছু নেতাকর্মীর পরামর্শে তার ফেসবুক আইডি হ্যাকড হয়েছে মর্মে গত ২৩ অক্টোবর রাজধানীর পল্লবী থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন। তবে ঘটনার সত্যতা পাওয়ায় গত ২৬ অক্টোবর জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ তিথী সরকারকে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সাময়িকভাবে বহিষ্কার করে। বাংলাদেশ ছাত্র অধিকার পরিষদ জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় শাখার দপ্তর সম্পাদকের পদ থেকেও তাকে বহিষ্কার করা হয়।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © 2019 banglarprotidin
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebazarbanglaro4451