শনিবার, ০৪ জুলাই ২০২০, ০৭:৩১ অপরাহ্ন

একুশে বইমেলা শিশুদের স্বপ্নরাজ্য হয়ে উঠছে ‘ইকরিমিকরি’

বাংলার প্রতিদিন ডেস্ক
  • আপডেট টাইম শুক্রবার, ৭ ফেব্রুয়ারী, ২০২০
  • ৬১ বার পড়া হয়েছে

প্রতি বছরের মতো এবছরও ফেব্রুয়ারির প্রথম দিন থেকেই শুরু হয়েছে অমর একুশে বইমেলা। বড়দের মতো বইপ্রেমী শিশুরাও যেন সারা বছর অপেক্ষায় থাকে এই গ্রন্থমেলার জন্য। সবসময়কার মতো এবারও অমর একুশে বইমেলার শিশু চত্বরে নানানধর্মী শিশুতোষ বই নিয়ে হাজির হয়েছে শিশুতোষ প্রকাশনাগুলোর সুন্দর সুন্দর স্টল। এসব প্রকাশনাগুলোর মধ্যে ‘ইকরিমিকরি’ অন্যতম। ২০১৬ সাল থেকেই শিশুতোষ এ প্রকাশনী অমর একুশে বইমেলায় অংশ নিচ্ছে।  চলতি বছরে তারা আগের তুলনা একটু বড় পরিসরে কাজ করছে। এবার গল্প, কবিতা, ছড়া, লোককাহিনী, কমিক বই, রূপকথার বইয়ের পাশাপাশি নিয়ে এসেছে অক্ষর চেনার বই ও  শিশুতোষ পত্রিকা ‘ ইকরিমিকরি’। গত বছরের বৈশাখ থেকে এ প্রকাশনী শিশুদের উপযোগী এ মাসিক পত্রিকা বের করছে। মজার ব্যাপার হচ্ছে, এবার ইকরিমিকরি তাদের স্টল এমনভাবে সাজিয়েছে যাতে করে প্রবেশ করার সঙ্গে সঙ্গেই শিশুদের মনে হবে যেন তারা পা রেখেছে কোনো রূপকথার দেশে। যেখানে মেঘের সিঁড়ি বেয়ে ছুঁয়ে দেখা যাবে সূর্য আর সাদা পাখি। যেখানে ছোট্ট সোনাদের জন্য ডানা রেখে গেছে বর্ণিল কোনো প্রজাপতি।

ইকরিমিকরির ভাষ্য, এটি কেবল প্রকাশনা নয়, আমরা শিশুদের জন্য এমন এক স্বপ্নরাজ্য গড়তে চাই যা হবে তাদেরই মতো। এখানে ৩/৪ বছর বয়সী  থেকে শুরু করে ১০ বছর বয়সী শিশুদের কথা মাথায় রেখেই বই তৈরি ও ইলাস্ট্রেশনের কাজ করার পরিকল্পনা থাকে। তাছাড়া বাবা মায়েরা স্টলে গিয়ে শিশুদের বয়স বললেই তাদের উপযোগী বইগুলো সাজেস্ট করে দেয়া হবে। বয়সঅনুযায়ীএবারের বইমেলাতে ইকরিমিকরিতে রয়েছে প্রায় ৬৫টির বেশি বই। বেশিরভাগ বইতেই যথাসম্ভব কম যুক্তাক্ষর ব্যবহার করা হয়েছে যাতে করে সদ্য পড়তে শেখা শিশুরা নিজে নিজে পড়তে পারে। বেশিরভাগ বই-ই পিকটোরিয়াল যাতে একেবারেই ছোট শিশুদের জন্য পাশাছবির মাধ্যমে মজা করে একটি গল্প বলা হয়েছে।

ইকরিমিকরি প্রসিদ্ধ ও নবীন লেখক, ছড়াকার ও শিল্পীর কাজ নিয়েই অগ্রসর হচ্ছে। য এএদের মধ্যে রয়েছেন সুকুমার বড়ুয়া, ইমদাদুল হক মিলন, ধ্রুব এষ, রফিকুন নবী,  আরো আছেন আহমেদ রিয়াজ, তুষার আবদুল্লাহ সাইদুস সাকলায়েন, কাকলী প্রধান, মানব গোলদার, ফারজানা তান্নী, সাদিকা রুমন, সানজিদা সামরিন প্রমুখ। মজার মজার ছবিতে সেইসব লেখা জীবন পেয়েছে। বইইকরিমিকরির বইগুলোয় এঁকেছেন সব্যসাচী মিস্ত্রী, চিন্ময় দেবর্ষী, দেওয়ান আতিকুর রহমান, বিপ্লব চক্রবর্তী, নাজমুল আলম মাসুম, শামীম আহমেদসহ আরও অনেকে।

আগের প্রকাশিত বইগুলোর সঙ্গে এবারের বইমেলাতে আরও যোগ হয়েছে নতুন কয়েকটি বই ধ্রুব এষের লেখা দুটি ‘বই অং বং চং’ ও ‘ভারি মজা তো!’, সাইদুস সাকলায়েনের ‘সবাই মিলে নাচি’। আছে রূপান্তরধর্মী বই আনীলা পারভীনের ‘অস্ট্রেলিয়ার রূপকথা’ ও সানজিদা সামরিনের ‘আফ্রিকার রূপকথা’, রুশিদান ইসলামের ছড়া চাই ছড়া, মোজাম্মেল হক নিয়োগীর পাখিদের খুশির দিন সহ এসেছে আরও কয়েকটি বই। এছাড়াও কয়েকদিন পর আরও নতুন কিছু বই আসবে। ইকরিমিকরি জানায়, ছোট্ট সোনামণিদের জন্য আমরা এমন বই তৈরি করতে চাই যা ওরা এক নিমিষে মজা নিয়ে পড়ে ফেলতে পারবে। আমরা এমন পাণ্ডুলিপি বাছাই করি যা শিশুদের উপযোগী, যা তাদের স্বপ্ন ও অনুভূতিকে স্পর্শ করতে পারবে।  খ্যাতিমাখ্যাতিমান শিল্পী ও লেখকের  চেয়ে লেখাটি ও আঁকাটি কতটা শিশু উপযোগী বা শিশুমনস্ক এবং সেগুলো ওদের স্বপ্নরাজ্যের কত কাছাকাছি সেদিকেই লক্ষ্য এই প্রকাশনার।

বইমেলায় ইকরিমিকরির বইগুলো নেড়েচেড়ে দেখতে ঢুঁ মারতে হবে ৭৭৫-৭৭৬ নম্বর স্টলে।  এছাড়াও ইকরিমিকরির বই ও ম্যাগাজিন কেনা যাবে- পাঠক সমাবেশ , বাতিঘর , বেঙ্গল বই, বই বিচিত্রা , কথাপ্রকাশ , চর্চা, পিবিএস, আগোরা , স্বপ্ন, ডেইলি শপিং শপ এন সেভ, রকমারী ডটকম,  ইকরিমিকরি ডটকম, ইকরিমিকরি ফেসবুক শপ ও দারাজ ডটকম থেকে।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © 2019 banglarprotidin
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebazarbanglaro4451