রবিবার, ২৯ মার্চ ২০২০, ০৫:০৭ অপরাহ্ন

ঘূর্ণিঝড়ে গাছচাপায় খুলনা ও পটুয়াখালীতে তিনজন নিহত

অনলাইন ডেস্কঃ
  • আপডেট টাইম রবিবার, ১০ নভেম্বর, ২০১৯
  • ৬৬ বার পড়া হয়েছে

ঘূর্ণিঝড় ‘বুলবুল’-এর প্রভাবে গাছচাপায় খুলনার দীঘলিয়া ও দাকোপ উপজেলায় দুজন এবং পটুয়াখালীর মির্জাগঞ্জ উপজেলায় একজন নিহত হয়েছেন।

ভারতের পশ্চিমবঙ্গের উপকূলে আঘাত হানার পর গতকাল শনিবার গভীর রাতে ঘূর্ণিঝড় ‘বুলবুল’ কম শক্তি নিয়ে বাংলাদেশের সুন্দরবন উপকূলবর্তী অঞ্চলে আঘাত হানে। এটি প্রথমে আঘাত হানে খুলনার সুন্দরবন সংলগ্ন অঞ্চলে। ঝড়টি দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল থেকে উত্তর-পূর্বাঞ্চলের দিকে অগ্রসর হচ্ছে। দুপুরে ঝড়টি বরিশাল-পটুয়াখালী-বাগেরহাট অঞ্চলের উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছিল।

খুলনা থেকে প্রতিনিধি মুহাম্মদ আবু তৈয়ব জানিয়েছেন, খুলনার পুলিশ সুপার (এসপি) এস এম শফিউল্লাহ জানান, দাকোপ উপজেলায় প্রমিলা মণ্ডল নামে এক গৃহবধূ আজ রোববার সকালে আশ্রয়কেন্দ্র থেকে বাসার অবস্থা জানতে গিয়েছিলেন। এ সময় গাছচাপায় মৃত্যু হয় তাঁর।

এ ছাড়া আজ সকালে দীঘলিয়া উপজেলার সেনহাটিতে আলমগীর হোসেন নামে আরো এক ব্যক্তি গাছচাপায় নিহত হয়েছেন।

এদিকে খুলনার ওয়েস্ট জোন পাওয়ার ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানির সুপারিনটেনডেন্ট প্রকৌশলী আবুল হাসান বলেন, আজ ভোর ৪টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত ৬৯টি ফিডারে বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ থাকে। ১২টার পর তিনটি ফিডার আংশিক বিদ্যুৎ নিতে সক্ষম হয়।

খুলনার উপকূলীয় উপজেলা কয়রার কন্ট্রোল রুম সূত্রে বলা হয়েছে, উপজেলার উত্তর বেদকাশী ও দক্ষিণ বেদকাশী পানির নিচে তলিয়ে গেছে। বহু চিংড়ি ঘের পানিতে তলিয়ে গেছে। এ ছাড়া বিভিন্ন সড়কে গাছপালা পড়ে যাওয়ার কারণে কয়রার সঙ্গে সড়ক যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে বলেও জানান তিনি।

এদিকে খুলনা মহানগরের প্রধান প্রধান সড়ক আজ সকালে পানিতে তলিয়ে গেছে। খুলনার নিম্নাঞ্চল এখনো পানির নিচে রয়েছে। এ ছাড়া সড়কে যানবাহন চলাচল খুবই কম। সরকারি ছুটির দিন থাকায় প্রয়োজন ছাড়া কেউ ঘর থেকে বের হচ্ছে না।

পটুয়াখালী থেকে প্রতিনিধি কাজল বরণ দাস জানিয়েছেন, পটুয়াখালীর মির্জাগঞ্জ উপজেলায় গাছচাপায় হামেদ ফকির (৬৫) নামে এক বৃদ্ধের মৃত্যু হয়েছে।  আজ ভোররাতে উপজেলার উত্তর রামপুরা গ্রামে প্রচণ্ড ঝড়ো বাতাসের তোড়ে ঘরের উপর গাছ পড়লে চাপা পড়ে নিহত হন তিনি।

পটুয়াখালীর জেলা প্রশাসক মতিউল ইসলাম চৌধুরী জানিয়েছেন, এখনো আতঙ্ক রয়েছে। আশ্রয়কেন্দ্রে অবস্থানরত মানুষদের বের না হওয়ার জন্য বলা হয়েছে।

কুয়াকাটা পৌরসভার কাউন্সিলর শাহ আলম হাওলাদার জানান, সাগর ও নদী ঘেঁষা বাঁধের বাইরের বাসিন্দাদের বেশকিছু কাঁচা ঘর ভেঙে পানিতে তলিয়ে গেছে।

কুয়াকাটায় সাগর প্রচণ্ড উত্তাল রয়েছে। রাঙ্গাবালীর চর আন্ডায় বেড়িবাঁধের ভাঙা অংশ থেকে পানি ঢুকে তলিয়ে গেছে পুরো চর। সেখানে একটি মাত্র শেল্টার হোম থাকায় চরবাসীকে দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে।

এদিকে জোয়ারের প্রভাবে নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হওয়ায় উপকূলের ১০ হাজার মানুষ পানিবন্দি হয়ে পড়েছে। কলাপাড়ার লালুয়া চাড়িপাড়ার ভাঙা বাঁধ দিয়ে রাবনাবাদ নদীর পানি প্রবেশ করার ফলে ১০টি গ্রামের মানুষ ভোগান্তিতে রয়েছে। এদিকে পটুয়াখালী-কুয়াকাটা সড়কের কয়েকটি স্থানে বাতাসের তোড়ে গাছ উপড়ে পড়েছে। জেলার বিভিন্ন স্থানে আমন ফসলি ক্ষেতের ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। এতে পাকা ও আধপাকা ধানের গাছ পানিতে ডুবে আছে।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর

করোনাভাইরাসের বিস্তার ঠেকাতে ইরান বিভিন্ন জনাকীর্ণ কারাগারের ৫৪ হাজারের বেশি বন্দীকে সাময়িক মুক্তি দিয়েছে। বিচার বিভাগবিষয়ক মুখপাত্র গোলাম হোসেন ইসমাইলি সাংবাদিকদের এ তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, করোনাভাইরাসে সৃষ্ট রোগ কোভিড-১৯ পরীক্ষার ফল নেগেটিভ আসার পর ওই বন্দীদের জামিনে মুক্তি দেওয়া হয়েছে। বিবিসি অনলাইনের খবরে বলা হয়, ব্যাপক হারে জামিন দেওয়া হলেও পাঁচ বছরের বেশি সাজাপ্রাপ্ত ‘নিরাপত্তা বন্দীদের’ ক্ষেত্রে তা প্রযোজ্য হয়নি। আর এই গণজামিনের ঘটনায় ইরানি বংশোদ্ভূত ব্রিটিশ দাতব্যকর্মী নাজানিন জাঘারি-র‌্যাটক্লিফ খুব শিগগির মুক্তি পেতে পারেন বলে জানিয়েছেন ব্রিটিশ এমপি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নাতনি টিউলিপ সিদ্দিক। খবরে টিউলিপ সিদ্দিকের টুইটার পোস্ট তুলে ধরে বলা হয়েছে, তিনি বলেন, জাঘারি-র‌্যাটক্লিফ আজ-কালের মধ্যে মুক্তি পেতে পারেন বলে জানিয়েছেন যুক্তরাজ্যে নিযুক্ত ইরানি রাষ্ট্রদূত। নাজানিনের মুক্তি চেয়ে ‘হ্যাশট্যাগ ফ্রি নাজানিন’ লিখে দ্বিতীয় পোস্টে টিউলিপ বলেন, ‘যদি এই সাময়িক মুক্তির ঘটনা ঘটে, তবে ব্রিটিশ সরকারের এটিকে (মুক্তি) স্থায়ী করার দায়িত্ব থেকে যায়। তাঁকে যেন দর-কষাকষির বস্তু হতে না দেওয়া হয়। আমি আরও উদ্বেগ প্রকাশ করছি যে নাজানিন তাঁর পরিবারকে জানিয়েছেন, করোনাভাইরাসের জন্য এখনো তাঁকে পরীক্ষা করা হয়নি।’ ব্রিটিশ-ইরানি নাগরিক নাজানিনের স্থায়ী মুক্তির আহ্বান জানিয়েছেন ব্রিটিশ এমপি টিউলিপ সিদ্দিক। ছবি: টিউলিপ সিদ্দিকের টুইটার থেকে ব্রিটিশ-ইরানি নাগরিক নাজানিনের স্থায়ী মুক্তির আহ্বান জানিয়েছেন ব্রিটিশ এমপি টিউলিপ সিদ্দিক। ছবি: টিউলিপ সিদ্দিকের টুইটার থেকে এদিকে নাজানিনের স্বামী গত শনিবার দাবি করেছেন, তেহরানের ইভিন কারাগারে তাঁর স্ত্রীর কোভিড-১৯ সংস্পর্শ ঘটেছে। তবে কর্তৃপক্ষ তাঁকে পরীক্ষা করতে অস্বীকৃতি জানিয়েছে। এ ব্যাপারে বিচার বিভাগবিষয়ক মুখপাত্র গোলাম হোসেন ইসমাইলি বলেছেন, নাজানিনের সঙ্গে পরবর্তী সময়ে তাঁর পরিবারের যোগাযোগ হয়েছে এবং তিনি পরিবারকে জানিয়েছেন, তিনি সুস্থ আছেন। ২০১৬ সালে নাজানিনকে গুপ্তচরবৃত্তির অভিযোগে পাঁচ বছরের জেল দেয় ইরান। তবে নাজানিন ওই অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। ব্রিটিশ সরকারও নাজানিনকে নির্দোষ দাবি করেছে। ব্রিটিশ পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র বলেছেন, ব্রিটিশ-ইরানি দ্বৈত নাগরিকদের পরিস্থিতি মূল্যায়ন করতে ব্রিটিশ স্বাস্থ্যকর্মীদের ইভিন কারাগারে ঢোকার অনুমতি দেওয়ার আহ্বান জানানো হয়েছে ইরানের কাছে। বিশ্বজুড়ে কোভিড-১৯–এ আক্রান্তের সংখ্যা এখন ৯০ হাজারের বেশি। মারা গেছেন ৩ হাজার ১১০ জন। এর বেশির ভাগই চীনের। গত বছরের ডিসেম্বরে চীনের হুবেই প্রদেশের উহান শহর থেকে ভাইরাসটি ছড়ায়। চীনের বাইরে দক্ষিণ কোরিয়া, ইরান ও ইতালির পরিস্থিতি সবচেয়ে খারাপ। গতকাল মঙ্গলবার ইরানের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, সেখানে মোট আক্রান্ত হয়েছেন ২ হাজার ৩৩৬ জন। তবে প্রকৃত সংখ্যা এর চেয়ে অনেক বেশি বলে মনে করা হচ্ছে। ৭৭ জনের মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করা হয়েছে। ইরানের সঙ্গে সম্পৃক্ত ব্যক্তিদের মাধ্যমে আফগানিস্তান, কানাডা, লেবানন, পাকিস্তান, কুয়েত, বাহরাইন, ইরাক, ওমান, কাতার ও সংযুক্ত আরব আমিরাতে আক্রান্ত হওয়ার ঘটনা ঘটেছে। ইরানের শীর্ষ কর্মকর্তারাও ভাইরাসটিতে আক্রান্ত হয়েছেন। কোভিড-১৯–এ আক্রান্ত হয়ে ইরানের সর্বোচ্চ নেতা আয়াতুল্লাহ আলী খামেনির উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য ৭১ বছর বয়সী মীর মোহাম্মদি মারা গেছেন। দেশটির ২৯০ জন এমপির মধ্যে ২৩ জনের পরীক্ষার ফল পজিটিভ এসেছে। সবশেষ আক্রান্ত হয়েছেন জরুরি স্বাস্থ্যসেবার প্রধান পিরহোসেইন কোলিভান্দ।

© All rights reserved © 2019 banglarprotidin
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebazarbanglaro4451