বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০১৯, ০৪:১২ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ ::
বাংলার প্রতিদিন ডটকম এর জন্য সকল জেলা/উপজেলা পর্যায়ে সাংবাদিক ও শিক্ষাণবীশ সাংবাদিক নিয়োগ চলছে। আগ্রহীরা আপনার বায়োডাটা আমাদেরকে ই-মেইল করুন। আমাদের ই-মেইল ॥ banglarprotidin@gmail.com ধন্যবান্তে- সম্পাদক

বার্সেলোনাকে রোমাঞ্চকর ম্যাচে বাঁচালেন মেসি

বাংলার প্রতিদিন ডেস্ক
  • আপডেট টাইম বুধবার, ৩ এপ্রিল, ২০১৯
  • ২ বার পড়া হয়েছে

অনলাইন ডেস্কঃ

কথায় আছে, সকালের সূর্যটা দেখেই বোঝা যায় দিনটা কেমন যাবে। কিন্তু মঙ্গলবার রাতে স্প্যানিশ লা লিগায় বার্সেলোনা ও ভিয়ারিয়েলের ম্যাচে বহুল প্রচলিত প্রবাদটি একেবারেই বৃথা গেছে। শুরু আর শেষের পুরোপুরি অমিলের ম্যাচটাতে শেষ পর্যন্ত কেউ জেতেনি, জিতেছে ফুটবল। একেই বোধ হয় বলে আকর্ষণীয় ফুটবল-যুদ্ধ। লড়াই, উত্তেজনা, আক্রমণ-প্রতি আক্রমণ কী ছিল না ম্যাচে? তবে ম্যাচশেষে হিরো ওই একজনই, লিওনেল মেসি। বদলি হিসেবে নেমে মেসির শেষ সময়ের গোলে ভিয়ারিয়েলের বিপক্ষে পরাজয় এড়িয়েছে বার্সেলোনা। মঙ্গলবার রাতে আট গোলের রোমাঞ্চকর ম্যাচটি ৪-৪ গোলে ড্র হয়।

অথচ ম্যাচের প্রথম ১৫-২০ মিনিট দেখার পর যে কেউ হয়তো ভেবে নিয়েছিল, বার্সেলোনায় পিষ্ট হবে ভিয়ারিয়েল। দুর্দান্ত ফুটবলশৈলী প্রদর্শনী করে ম্যাচের প্রথম ১৬ মিনিটেই ২-০ গোলে এগিয়ে যায় বার্সা। ম্যাচের ১২ মিনিটে ম্যালকমের পাস থেকে বল পেয়ে প্রথম গোল করেন ফিলিপ কৌতিনিয়ো। মিনিট চারেক পর আবার গোল পায় কাতালানরা। এবার গোলদাতা ম্যালকম নিজে।  শুরুর ঝলকে ২-০ গোলে এগিয়ে যায় আর্নেস্তো ভ্যালভার্দের দল।

তবে দুই গোলে পিছিয়ে পড়ে দুর্দান্তভাবে লড়াইয়ে ফিরে ভিয়ারিয়েল। দ্বিতীয় গোল খাওয়ার মিনিট সাতেক পর ম্যাচে প্রথমবারের মতো বার্সার জাল খুঁজে পায় ভিয়ারিয়েল। ম্যাচের তখন ২৩ মিনিট, বাঁ পায়ের নিখুঁত শটে গোল করে ব্যবধান ২-১ করেন ভিয়ারিয়েলের স্যামুয়েল। প্রথমার্ধে এরপর আর গোল না হওয়ায় ২-১ স্কোরলাইন নিয়ে বিরতিতে যায় দুই দল।

দ্বিতীয়ার্ধে সম্পূর্ণ ভিন্ন এক ভিয়ারিয়েলকে মাঠে পায় দর্শক। দারুণ আক্রমণাত্মক ফুটবল খেলে বার্সার রক্ষণভাগে ত্রাস সৃষ্টি করে দলটি। ফলাফলটাও সঙ্গে সঙ্গেই পেয়ে যায়। দ্বিতীয়ার্ধের খেলা শুরুর মাত্র পাঁচ মিনিটের মধ্যেই সমতা ফেরায় ভিয়ারিয়েল। ম্যাচের ৫০ মিনিটে স্যামুয়েলের বাড়ানো বলে অসাধারণ এক গোল করে কার্ল টোকো একাম্বি স্কোরলাইন ২-২ করেন।

ম্যাচে যেকোনো কিছু ঘটতে পারে এমন আশঙ্কায় ৬১ মিনিটে কৌতিনিয়োর বদলি হিসেবে মেসিকে মাঠে নামান কাতালান কোচ ভ্যালভার্দে। কিন্তু এক মিনিট পর উল্টো আরো এক গোল খেয়ে বসে বার্সেলোনা। ভিসেন্তে ইবোরা স্কোর করে ৩-২ গোলে এগিয়ে দেন ভিয়ারিয়েলকে। ম্যাচের ৮০ মিনিটে বার্সা সমর্থকদের বুকে কাঁপন ধরিয়ে ফেলেন কার্লোস বাক্কা। সতীর্থের লম্বা করে বাড়ানো বলে গোল করে দলকে ৪-২ ব্যবধানে এগিয়ে দেন বাক্কা।

একেবারে শেষ মুহূর্তেই ওই সময়টাতেই নিজের জাদু দেখান মেসি। ম্যাচের নির্ধারিত সময়ের শেষ মিনিটে ফ্রি-কিক পায় বার্সা। মেসির চোখ ধাঁধানো এক ফ্রি-কিক সবাইকে মন্ত্রমুগ্ধ করে জাল খুঁজে নিলে ব্যবধান কমে ৪-৩ হয়। অতিরিক্ত সময়ে ভিয়ারিয়ালের অবিশ্বাস্য জয়ের স্বপ্নভঙ্গ হয়। ৯৩ মিনিটে বার্সেলোনার পাওয়া কর্নার কিকে উড়ে আসা বলে লুইস সুয়ারেজ দারুণ এক গোল করে স্কোরলাইনটা ৪-৪ করেন।

ড্র করা ম্যাচে পয়েন্ট হারালেও ৩০ ম্যাচে ৭০ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষস্থান ঠিকই অক্ষুণ্ণ রেখেছে বার্সা। ৬২ পয়েন্ট নিয়ে তাদের ঠিক পরেই আছে অ্যাতলেটিকো মাদ্রিদ।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর
© All rights reserved © 2019 banglarprotidin
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com
themebazarbanglaro4451